গাইবান্ধা-পলাশবাড়ী মহাসড়কে ট্রাক ও আলম এন্টারপ্রাইজ কোচের মুখোমুখি সংঘর্ষে অন্তত ১৬ জন নিহত হয়েছে।

আহত হয়েছে প্রায় ৪০ জন। এর মধ্যে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ২ জন ঘটনাস্থলেই মারা যায় ও গুরুত্বর আহত অনেককেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় আশেপাশের মেডিকেলে ভর্তি করা হয়।

শুক্রবার দিবাগত রাতে ঠাকুরগাঁও থেকে ছেড়ে আসা আলম এন্টারপ্রাইজ ও ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা মাল বোঝাই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে এ ঘটনা ঘটে। এসময় ঘটনাস্থলেই ৯ জন নিহত হয় ও প্রায় ৪০ জন গুরুত্বর আহত হয়।

পরে আহতদের মধ্যে থেকে শনিবার ভোরে পলাশবাড়ী, গাইবান্ধা ও রংপুর মেডিকেলের ১১ জন নিহতের খবর পাওয়া যায়।

নিহতদের মধ্যে, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ৯নং রায়পুর ইউনিয়নের দেহন গ্রামের মসলিম উদ্দীনের ছেলে এনামুল হক (২৪), মৃত আব্দুল আলীর ছেলে রহিম উদ্দীন (২৫) ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। মুর্মুষ্য অবস্থায় গুরুত্বর আহত হয়ে মেডিক্যালে রয়েছে একই গ্রামের গিয়াস উদ্দীনের ছেলে আব্দুল করিম (২৪) ও ছোট ভাই খলিলুর রহমানের ছেলে সবুজ (২২)।

গাইবান্ধা পলাশবাড়ী থানার এসআই কেএম জগলুল ইসলাম জানান, আহতদের উদ্ধার করে নিকটস্থ বিভিন্ন মেডিক্যাল এ ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্য অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য