কুড়িগ্রাম পৌরসভার হরিকেশ মধ্যপাড়ায় গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে মিলন মিয়া (২০) ও মনিষা আক্তার (১৭) নামে দুজন প্রেমিক-প্রেমিকা।

বুধবার দুপুরে প্রেমিকের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। নিহতদের মরদেহ বর্তমানে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে রয়েছে। এই প্রেমিক জুটি একমাস পূর্বে গোপনে বিয়ে করেছিল বলে প্রতিবেশীরা জানান। মনিষার মা মিনা বেগম বিয়ের কথা জানার পর থেকে মেয়ের সাথে কলহ করে আসছিলেন।

পারিবারিকভাবে বিয়ে মেনে না নেওয়ায় আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মনিষার বাবা আইয়ুব মুন্সি (৫২) কুড়িগ্রাম পৌর বাজারে মুরগী ব্যবসায়ী এবং একই এলাকার পাম্প মিস্ত্রি বেলাল হোসেনের পূত্র মিলন। মিলন কাঠমিস্ত্রির কাজ করে।

বুধবার সকালে মনিষা তার মায়ের কাছে যায় এবং সেখান থেকে ফিরে এসে ঘরের দরজা বন্ধ করে দুজনে মোবাইলে গান শুনছিল। দীর্ঘক্ষণ তাদের সাড়া শব্দ না পেয়ে বাড়ির লোকজন ঘরের দরজার পর্দা সরিয়ে দেখে তারা দুজন ওড়নার দু’দিকে ঝুলে আছে। পড়ে নামিয়ে সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্য চিকিৎসক তাদের মৃত: ঘোষণা করেন।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহফুজার রহমান জানান, পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তারা ফিরে আসলে বিস্তারিত জানা যাবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য