সরকারিভাবে দুস্থ্য অসহায়দের মাঝে বিতরণের জন্য বরাদ্দকৃত ভিজিজিএফের ৩০ কেজি ওজনের চাল মজুতকৃত গোডাউন থেকে ট্রলিযোগে পাচারের সময় বিজিবি কর্তৃক সন্দেহ জনকভাবে দুই ব্যবসায়ীর মোট ৪৪৮ বস্তা চাল জব্দের ঘটনায় ফুলবাড়ী থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে বিজিবি।

বুধবার ঘটনার পর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় বাদি হয়েছেন লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের কাশিপুর কোম্পানীর কমান্ডার সুবেদার শহিদুল ইসলাম। পৃথক দুটি মামলায় আসামি করা হয়েছে অভিযুক্ত চাল ব্যবসায়ীসহ কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি মেম্বার মিলে মোট ২৪ জনকে।

৪০০ বস্তা চাল জব্দের প্রথম মামলার আসামি হলেন- গোডাউন মালিক শাহাদত হোসেন ওরফে মিন্টু মাষ্টার, কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মন্ডল, ইউপি মেম্বার জয়নাল আবেদীন, আলিফ উদ্দিন, আবুল হোসেন, সন্তোষ কুমার সেন, আলিমুদ্দিন, আফছার আলী, সংরক্ষিত আসনের মেম্বার লায়লা বেগম, ইতি চক্রবর্তী, চাল ক্রেতা রফিকুল ইসলাম, হযরত আলী, গোলজার রহমান ও একরামুল হক।

অপরদিকে ৪৮ বস্তা চাল জব্দের দ্বিতীয় মামলার আসামিরা হলেন- গোডাউন মালিক চাল ব্যবসায়ী রমজান আলী, কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন মন্ডল, ইউপি মেম্বার জয়নাল আবেদীন, রফিকুল ইসলাম, ক্রেতা এরশাদুল হক, শাহীনুর রহমানসহ আরও ৪ জন অজ্ঞাত আসামী।

মামলার বাদি ও বিজিবির কাশিপুর কোম্পানীর কমান্ডার সুবেদার শহিদুল ইসলাম পরিবর্তন ডটকমকে জানান, বুধবার সকাল পৌনে ১১টার দিকে তিনি সঙ্গীয় বিজিবি ফোর্স নিয়ে টহলে বের হলে কাশিপুর বাজারের একটি গোডাউন ঘর থেকে খাদ্য অধিদপ্তরের নাম সংবলিত বস্তাভর্তী চাল ট্রলিতে উঠাতে দেখে তার সন্দেহ হয়।

পরে তিনি মজুদকৃত চালের গোডাউনে ভিতর ঢুকে দেখতে পান আরও অসংখ্য বস্তাভর্তি চাল। বিষয়টি তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও ও ফুলবাড়ী থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) খন্দকার ফুয়াদ রুহানীকে জানান। পরে থানার ওসি ও নির্বাহী কর্মকর্তা এসে দুই ব্যবাসায়ীর মোট ৪৪৮ বস্তা চাল জব্দ করেন।

এর মধ্যে কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের পাশেই কাশিপুর বাজারের চাল ব্যবসায়ী শাহাদত হোসেন মিন্টুর (৫৫) গোডাউনে ৪০০ বস্তা ও পাশ্বাবর্তী রমজান আলীর (৪৫) গোডাউন থেকে ৪৮ বস্তা চাল জব্দ করা হয়।
এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ (ওসি) খন্দকার ফুয়াদ রুহানীকে জানান, সরকারি চাল পাচারের পৃথক দুটি মামলায় বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত কোন আসামি গ্রেফতার হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য