দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর বড়মাঠে নাগরদোলা ভেঙ্গে পড়ে নারী ওশিশুসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে গুরুতর ৫ জনকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

শনিবার (১৬ জুন) ঈদুল ফিতরের দিন সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় দিনাজপুর বড়মাঠে অনুষ্ঠিত ঈদ আনন্দ মেলায় নাগরদোলা দোলনা ভেঙ্গে পড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে চিচিরবন্দর উপজেলার আন্দারমোহা গ্রামের হবিবর রহমানের মেয়ে হাবিবা আক্তার (১১) ও হোমায়রা আক্তার হাসি (৬), সদর উপজেলার পুলহাট এলাকার সাহিজার রহমানের স্ত্রী আরজিনা আক্তার সাথী (২০) গোলাম ফারুকের মেয়ে ফারিহা আক্তার নোভা (৯), একই এলাকার মনসুর আলীর মেয়ে ইয়াসমিন আক্তারকে (১৬) দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডেকেল কলেজ হাসপাতালের ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া দিনাজপুর শহরের নিমনগর বালুবাড়ী এলাকার নাসিম (১৯), উপশহর এলাকার সোহেল মিয়া (৩৫), তাঁর স্ত্রী শারমিন আক্তার (২০), তাঁর মেয়ে সাহিনা (১০), শহরের সইহারী এলাকার মো. ফারুকের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (৩৫), মেয়ে রাফি আক্তার (১১), বালুয়াডাঙ্গা এলাকার মিজু মিয়ার স্ত্রী জতি (২৫), মেয়ে মিম (৬), একই এলাকার আব্দুল মতিনের ছেলে মজিব (১১) ও শহরের পাটুয়াপাড়া এলাকার মৃত আব্দুস সামাদ’র ছেলে ফেরদৌস ওয়াহেদ (৪৫) আহত হয়েছেন। তাদেরকে প্রাথমিক চিকিসা দেয়া হয়েছে।

এদিকে ফেসবুকে সারারাত এই দূঘটনা নিয়ে আলোচনা সমালোচনার ঝড় চলছে। অনেকে প্রশ্ন করেন এই সমস্ত আসুরক্ষিত যন্ত্র যা অপরিকল্পিত, অপরিক্ষিত এবং অঅনুমদিত ভাবে তৈরি তা প্রশাসন কি করে অনুমদন দেয়। কেন শহরের শিশু পার্ক বাদ দিয়ে বড়মাঠে এই সব আস্থায়ী অসুরক্ষিত বিনোদন সামগ্রীর শিশু মেলার নামে অনিমদন দেওয়া হচ্ছে। কোমল শিশুদের শিশু সুলভ প্রবনতা জিম্মি করে যারা ব্যবসা করছে তাদের কি সাজা হওয়া উচিৎ নয়। দিনাজপুরের সচেতন নাগরিকবৃন্দ মাঠ থেকে এই বিপদজনক শিশু মেলা দ্রুত সরিয়ে ফেলার দাবি জানান। তারা বলেন আজ অল্পের জন্য অনেক গুলো মানুষ বেঁচে গেছে, কাল এই সৌভাগ্য নাও থাকতে পারে।ভবিষ্যতে এই শিশু মেলায় দূর্ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা বাড়লে এর দায় ভার কি প্রশাসন নিবে।

দিনাজপুর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স অফিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আখতার হামিদ খান খান, শনিবার সন্ধ্যায় ৭টায় দিনাজপুর বড়মাঠে অনুষ্ঠিত ঈদ আনন্দ মেলায় নাগরদোলা দোলনা ভেঙ্গে পড়ে। এতে অন্তত ২০ আহত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে। এদের মধ্যে গুরুতর আহত ৫জনকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তবে কি কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে তা তাৎক্ষণিক জানা যায়নি। তদন্ত করে ঘটনার মূল কারণ জানা যাবে বলে জানান ফায়ার সার্ভিসের ওই কর্মকর্তা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য