জাপানে একটি বুলেট ট্রেনে ছুরি নিয়ে হামলায় এক যাত্রী নিহত ও অপর দুই জন আহত হয়েছেন।

হামলাটি চালিয়েছে সন্দেহে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

স্থানীয় সময় শনিবার রাত প্রায় ১০টার দিকে টোকিও থেকে ওসাকা যাওয়ার পথে একটি শিনকানসেন ট্রেনে (বুলেট ট্রেনে) প্রাণঘাতী ছুরিকাঘাতের এই ঘটনাটি ঘটে।

ট্রেনটি ওদাওয়ারা স্টেশনে থামলে পুলিশ ট্রেনটির ওই কামরাটিতে অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজনকে আটক করে।

ঘটনার সময় ট্রেনটিতে আট শতাধিক যাত্রী ছিল।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ঘাড়ে আঘাত পাওয়া এক পুরুষ যাত্রীকে হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী আহত অপর দুই যাত্রী নারী।

সন্দেহভাজন ২২ বছর বয়সী ইচিরো কোজিমাকে খুনের চেষ্টার সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে স্থানীয় পুলিশের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন।

জাপানি ব্রডকাস্টার এনএইচকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোজিমা পুলিশকে জানিয়েছেন কোনো উদ্দেশ্য ছাড়াই ট্রেনের ওই যাত্রীদের আঘাত করেছেন তিনি এবং তার কাছে ‘একাধিক ধারালো বস্তু’ ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আতঙ্কিত যাত্রীরা কাঁদতে কাঁদতে পালানোর চেষ্টা করছিলেন।

জাপানি সংবাদপত্র মাইনিচি শিম্বুন সংবাদপত্রকে এক পুরুষ যাত্রী বলেছেন, “হঠাৎই অনেক যাত্রী ধাক্কাধাক্কি শুরু করে দেয়, লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়ে।”

জাপানে এ ধরনের হামলায় ঘটনা খুব বিরল। উন্নত দেশগুলোর মধ্যে জাপানে সহিংস অপরাধের হার খুব কম।

২০১৫ সালে একটি বুলেট ট্রেনের এক যাত্রী নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে আত্মহুতি দিয়েছিলেন। এই আগুন ছড়িয়ে পড়ে এক নারী যাত্রী মারা যান ও কামড়াজুড়ে ছড়িয়ে পড়া ধোঁয়ার কারণে ২০ জনেরও বেশি যাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য