নারীদের ড্রাইভিং লাইসেন্স দেয়া শুরু করেছে সৌদি আরব। আজ সোমবার ১০ নারীকে ড্রাইভিং লাইসেন্স দেয়া হয়েছে। আর কয়েক সপ্তাহ পরই নারীদের গাড়ি চালনার ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার কথা রয়েছে দেশটির। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা।

সৌদির ট্রাফিক অধিদপ্তরকে উদ্ধৃত করে খবরে বলা হয়, এতদিন ধরে সৌদি নারীরা দেশজুড়ে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত যেসব লাইসেন্স ব্যবহার করতো সেগুলো প্রতিস্থাপন করা হচ্ছে। বেশ কয়েকটি শহরে ১০ নারীকে তাদের বিদেশী লাইসেন্সের বদলে জাতীয় ড্রাইভিং লাইসেন্স দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, এতদিন সৌদি নারীরা যুক্তরাজ্য, কানাডা ও লেবাননসহ অন্য দেশের লাইসেন্স নিতেন। দেশেও তাদের সংক্ষিপ্ত গাড়ি চালানোর পরীক্ষা দিতে হতো।

সৌদি বার্তা সংস্থা এসপিএ জানিয়েছে, নারীদের গাড়ি চালনার সুযোগ করে দিতে দেশের বিভিন্ন জায়গায় লাইসেন্স বিনিময়ের প্রক্রিয়া চলছে। আগামী ২৪ জুন নারীদের গাড়ি চালনা বিষয়ক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়া হবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রথম সৌদি নারীকে রাজধানী রিয়াদে লাইসেন্স প্রদানের ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে অনুসারে, আগামী সপ্তাহের মধ্যে প্রায় ২০০০ লাইসেন্স প্রদান করা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নারীদের ওপর সৌদি আরবে বিশ্বের সবচেয়ে কঠিনতম কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা আছে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে সেসব নিষেধাজ্ঞা কিছুটা শিথিল করা শুরু করেছে দেশটি। গত বছরের সেপ্টেম্বরে বাদশাহ সালমান বিন আব্দুলাজিজ ইসলামিক আইন মেনে নারীদের গাড়ি চালনার অনুমতি দেয়া হবে বলে একটি আদেশপত্র স্বাক্ষর করেন।

ওই নির্দেশের আগে সৌদি আরব ছিল পৃথিবীর একমাত্র দেশ যেদেশে নারীদের গাড়ি চালনার অনুমতি ছিল না।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য