নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরে শশুরবাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে খালাতো ছোট ভাই মিনহাজুল ইসলাম নামের এক শিশুকে শ্বাসরোধ ও ছুরি দিয়ে হত্যা করেছে আরেক খালাতো বড় ভাই রাজিদুল ইসলাম।

আটক রাজিদুল ইসলামের দেওয়া তথ্যমতে পুলিশ নবাবগঞ্জ উপজেলার চকদলু গ্রামের এক ভূট্টা খেত থেকে গতকাল বুধবার সকালে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত শিশু মিনহাজুল ইসলাম (৯) বিরামপুর উপজেলার জোতবানি গ্রামের মো.দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। সে ওই এলাকার জোতবিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র।

আটক রাজিদুল ইসলাম (২০) বিরামপুর উপজেলার জোতবানি গ্রামের রাশেদুল ইসলাম ভুট্ট’র ছেলে।

শিশুটির পিতা দেলোয়ার হোসেনের উদ্বৃতি দিয়ে পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, রাজিদুল ও মিনহাজুল উভয়ে খালাতো ভাই। পাশাপাশি বাড়ী। রাজিদুল তার শুশুর বাড়িতে হিলি বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথাবলে শিশু মিনহাজুলকে নিয়ে যায়। রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজিদুল একাই বাড়িতে ফিরলে শিশুটির বিষয়ে জানতে চায় তার পরিবার।

এসময় সে জানায়, শিশু মিনহাজুলকে হত্যাকরে ভূট্টাক্ষেতে রেখে দিয়েছি। পরে তাকে নিয়ে রাতেই এলাকাবাসি নবাবগঞ্জ উপজেলা চকদলু রাস্তার পাশে ভূট্টার ক্ষেতে খোঁজা খুজির করলেও লাশ উদ্ধার করতে পারেননি। পরে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় খবর পেয়ে ওই এলাকা থেকেই শিশুটির লাশ উদ্ধার করে নবাবগঞ্জ পুলিশ।

নবাবগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত রায় লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ওই যুবককে আটক করে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করে এলাকাবাসি। পরে আটক রাজিদুল ইসলামকে নবাবগঞ্জ থানায় সোপর্দ করে বিরামপুর পুলিশ। তবে কি কারনে তাকে হত্যা করা হয়েছে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ধারণা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার কোন জের থাকতে পারে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য