মাসুদ রানা পলক, ঠাকুরগাও: ঠাকুরগাওয়ে পৃথক ঘটনায় গৃহবধূ সহ ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।শুক্রবার সকাল ৮ টা থেকে ৯ টার মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার সকালে জেলার রানীশংকৈল উপজেলার গোগোর পটুয়াপাড়া গ্রামের মোবারক আলী(৫৫) সকালে ঘুম থেকে বারান্দায় গর ছাগলকে খাবার দিতে যায়।ওইসময় বৃষ্টির সঙ্গে বিজলী চমকাতে খাকলে মোবারক আলী ঘরের জানাজা বন্ধ করার চেষ্টা চালায়। অকস্মাত বজ্রপাতে ঘটনাস্তলে তার মৃত্যু হয়।

একইদিন হরিপুর উপজেলার ডাম্গীপাড়া লঘুচাদ গ্রামের নইম উদ্দীন(২৬) পরিবারের লোকজন সহ মাঠে বোরোধান কাটতে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে বৃষ্টি শুরু হলে তারা রাস্তার পাশে শরিফন নেছা নামে একজনের বাড়িতে ওঠে।

ওইসময় বজ্রপাতে শরিফন নেছা(৪০), নইম উদ্দীন(২৬) ঘটনাস্থলে মারা যায়।সেখানে নইম উদ্দীনের ভাই মইন উদৃদীন ও তার মা রকেয়া বেগম(৩৫) আহত হয়।এছাড়া বজ্রপাতে রানীশংকৈল উপজেলার সন্ধারই গ্রামের ইসমাইল হোসেনের মেয়ে কুলসুম বেগম(১৪) কলেজপাড়া গ্রামের ফজর আলীর ছেলে আমিনুর রহমান (৩০). হরিপুর উপজেলার বকুয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী আলেমা (৪০), চৌরম্গী গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে লিমা (১০) ঝলসে গিয়ে আহত হয়েছে।

আহতদের রানীশংকেল উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।রানীশংকেল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিতসক ডা,ফিরোজ বজ্রপাতে হাসপাতালে ৬ জন ভর্তি হয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন।

বজ্রপাতে নিহত শরিফন নেছা লঘুচাদ গ্রামের বাবলুর স্ত্রী এবং নইম উদ্দীন আশানুরের ছেলে।

লেহেম্বা ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বজ্রপাতে তার ইউনিয়নে মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য