গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার বহুল আলোচিত ভ্যান চালক মোস্তাফিজুর হত্যা মামলার স্বাক্ষীর বাড়িতে হামলা চালিয়েছে আসামিগংরা।

এসময় নার্গিস বেগম নামের এক মহিলাকে শ্লীলতাহানী করাসহ বেধরক মারপিট করেছে। এতে নার্গিস বেগম সজ্ঞাহীন হারিয়ে ফেললে তাকে গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করান স্বজনেরা। মঙ্গলবার সকালে সাদুল্যাপুর উপজেলার বুজরুক জামালপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নার্গিস বেগমের স্বামী নুরুন্নবী মিয়া জানান, ২২ সেপ্টেম্বর/১৬ইং তারিখে মোস্তাফিজুর রহমান হত্যা মামলায় আমরা স্বাক্ষী হওয়ায় এ মামলার মূল আসামি ইসমাইল হোসেনের ছেলে একরামুল ও আঃ হাকিমের ছেলে দুদু মিয়া কর্তৃক বিভিন্ন সময়ে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছিল। এরই ধারাবাহীকতায় মঙ্গলবার সকালে একরামুল গংরা উত্তেজিত হয়ে আকস্মিক ভাবে নুরুন্নবী মিয়ার বসতবাড়িতে হামলা চালায় এবং অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করতে থাকে।

এসময় বাধা দিতে গিয়ে নার্গিস বেগমকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার চুলের মুঠো ধরে মাটিতে ফেলে শ্লীলতাহানী করাসহ বেধরক মারপিট করে আসামি গংরা। এতে গুরুতর আহত হয় নার্গিস বেগম। ঘটনার পর স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন দাঙ্গাবাজ একরামুল গংরা।

এ বিষয়ে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান নুরুন্নবী মিয়া।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য