মো: জাকির হোসেন, সৈয়দপুর (নীলফামারী) থেকেঃ নীলফামারীর সৈয়দপুরে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়ে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে, সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে শহরের গোলাহাট বধ্যভূমি এলাকায়।

পুলিশ জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় সৈয়দপুর শহরের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ইসলামবাগের আব্দুল হান্নানের পুত্র শাহিন হোসেন (২৭) ও নীচু কলোনীর ইউসুফ হোসেনের পুত্র জনি আহমেদকে (২৯) গ্রেফতার করা হয়। তারা পুলিশকে জানায়, মাদক ব্যবসায়ী জসিয়ার রহমান জসি ও নুর বাবুর কাছ থেকে ইয়াবা ক্রয় করে।

তারা আরো জানায়, জসি ও বাবু তাদের ইয়াবা ও অন্যান্য মাদক বাইপাস মহাসড়কের গোলাহাট বধ্যভূমিতে লুকিয়ে রাখে। তাদের দেয়া এ স্বীকারোক্তিতে রাত আড়াইটার দিকে পুলিশ শাহিন ও জনিকে সাথে নিয়ে মাদক উদ্ধারে যায়।

ওই সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীর সহযোগিরা পুলিশের ওপর গুলি চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সুযোগে শাহিন ও জনি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালালে উভয় পক্ষের গোলাগুলিতে গুলিবিদ্ধ হয় । গোলাগুলির এক পর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীর সহযোগিরা পালিয়ে যায়।

উদ্ধার করা হয় তাদের ফেলে যাওয়া ১২৩ পিচ ইয়াবাসহ ৪টি দেশীয় অস্ত্র। এ সময় আহত হয় আব্দুল ওয়াদূদ, মোকাররম হোসেন, রাশেদুল ইসলাম ও আমিনুজ্জামান নামে ৪ পুলিশ সদস্য। এদেরকে হাসপাতালে নেয়ার পর কতৃব্যরত চিকিৎসক মাদক ব্যবসায়ী শাহিন ও জনিকে মৃত্যু হিসেবে ঘোষণা দেয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সৈয়দপুর সার্কেল) অশোক কুমার পাল জানান, নিহত মাদক ব্যবসায়ীদের নামে থানায় ৭/৮টি করে মামলা রয়েছে। মাদকের সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যহত থাকবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য