দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর জেলা পুলিশের মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযানের অংশ হিসাবে বিরলে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এ সময় থানা পুলিশ মাদকদ্রব্যসহ অস্ত্র উদ্ধার করেছে। ঘটনায় ২ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। ঘটনায় থানায় পৃথক পৃথক ৩ টি মামলা দায়ের।

জানা গেছে, শনিবার রাত প্রায় ৩টায় বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ এর নেতৃত্বে পুলিশ মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান পরিচালনার সময় বিজোড়া ইউপি’র মুরাদপুর সাতভায়াপাড়া নার্সারী সংলগ্ন স্থানে পুলিশকে লক্ষ্য করে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এক পর্যায়ে পুলিশ আহত অবস্থায় ফরক্কাবাদ ইউপি’র তেঘরা নারাযণপুর (সরকারপাড়া) গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের পুত্র মোঃ বাবু ওরফে গালকাটা বাবু (৪৫) কে উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাঁকে মৃত ঘোষণা করে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মাহফুজ জামান আশরাফ জানান, মৃত বাবু’র বিরুদ্ধে মাদক আইনে বিরল থানায় ২০১২ খ্রিঃ হতে অদ্যবধি ৯ টি মামলা দায়ের হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি টুটুবর রাইফেল সদৃশ অস্ত্র, হাসুয়া সদৃশ রামদা ৩টি, ককটেল ৪ টি ও ১৯৩ পিস ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

এছাড়াও আহত পুলিশ কং শহিদুল ইসলাম ও কং আরিফুল ইসলাম দিনাজপুর পুলিশ লাইন হাসপাতালে প্রাথিমিক চিকিৎসা নিয়েছে। নিহতর লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তরের ব্যবস্থা নেয়া হবে। দুপুর ২ টায় এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত ঘটনায় বিরল থানায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনে ১টি, মাদক আইনে ১ টি ও হত্যা মামলা একটি দায়েরের করা হয়েছে।

নিহত বাবু’র পুত্র আল আমিন এর দাবী শুক্রবার রাতে মোটরসাইকেলসহ বাবুকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে আটক করা হয়েছিল এমন দাবীকে তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য