নবাবগঞ্জ(দিনাজপুর)সংবাদদাতা : দিনাজপুরের নববগঞ্জে দাফনের প্রায় ২মাস পর আক্কাস আলী (১৭) নামে এক শিক্ষার্থীর লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।

আদালতের নির্দেশে গতকাল শুক্রবার দুপুরে উপজেলার শালখুরিয়া গ্রামের পারিবারিক কবর স্থান থেকে তার লাশটি নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিট্রেট মোঃ মশিউর রহমান এর উপস্থিতিতে উত্তোলন করা হয়।

এ সময় নবাবগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত কুমার সরকার ,ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক সামসুল আলম, মামলার বাদী উপস্থিত ছিলেন। তার লাশ উত্তোলনের দৃশ্য দেখতে এলাকার উৎসুক জনতার কবর পাড়ে ভিড় জমায়।

পুলিশ জানান উপজেলা শালখুরিয়া গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে এবং শালখুরিয়া হাইস্কুল এর গতবারের এস এস সি পরিক্ষার্থী আক্কাস আলী (১৭) গত ১৯ শে মার্চ রাত আট টায় দিকে বাড়ি থেকে পাশ্ববর্তী তিখুর বাজারের ইসলামী সভা শুনার জন্য বের হয়ে যায়।

এর পর তার কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। গত ২১ মার্চ সকালে দিকে শালখুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পেছনে পানি প্রবাহের একটি নালা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

পানিতে পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ঐদিনেই বিকেলে তার পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়। তার পিতার সন্দেহ হয় যে, তার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে স্কুলের পেছনে ফেলে রেখে দেওয়া হয়েছে।

পরে এমন অভিযোগ আনায়ন করে পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে দিনাজপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিট্রেট আমলী আদালত ০৬ এ একটি মামলা দায়ের করেন।

আদালত মামলাটি গত ০৩ মে নবাবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ কে এফ আই আর হিসাবে গণ্য করার নির্দেশ দেয়। আদালতের ওই নির্দেশে নবাবগঞ্জ থানার মামলা নং-১২ তারিখ :০৯-০৫-২০১৮খ্রিঃ দায়ের হয়।

মামলার ভিকটিমের লাশ মনয়া তদন্তের জন্য গত কাল কবর থেকে উত্তোলন করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে এখনো কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য