ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়া শহরে তিন গির্জায় জঙ্গি হামলায় ১৩ জন নিহতের পর ২৪ ঘণ্টা পার না হতেই পুলিশ সদরদপ্তরে আত্মঘাতী হামলা হয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৫০ এর দিকে মোটর সাইকেলে করে আসা হামলাকারীরা ওই আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটায়।

পূর্ব জাভা পুলিশের মুখপাত্র ফ্রান্স বারুং মাংগেরা সাংবাদিকদের বলেছেন, কয়েকজন পুলিশ সদস্য এ ঘটনায় আহত হয়েছেন।

তবে কেউ নিহত হয়েছেন কি না- তাৎক্ষণিকভাবে তা তিনি জানাতে পারেননি।

“আমরা এখনও ভিকটিমদের শনাক্ত করছি। এই মুহূর্তে বিস্তারিত তথ্য আমরা দিতে পারছি না।”

রোববারের হামলার সঙ্গে পুলিশ সদরদপ্তরে বিস্ফোরণের কোনো যোগসূত্র আছে কি না, তাও এখনও স্পষ্ট নয়।

স্থানীয় টেলিভিশনে প্রচারিত সিসিটিভি ভিডিওর বরাতে এবিসি নিউজ জানায়, দুটি মোটরবাইকে করে মোট চারজন সকালে পুলিশ সদরদপ্তরের সামনে চেকপয়েন্টে এসে একটি গাড়ির পাশে থামে। পুলিশ সদস্যরা যখন তাদের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলেন, তখই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

ধারাবাহিক এসব হামলার ঘটনাকে ‘কাপুরুষোচিত বর্বরতা’ আখ্যায়িত করে ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো নতুন সন্ত্রাসবিরোধী আইন পাসের ওপর জোর দিয়েছেন।

এ হামলায় কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজন বেসামরিক আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ প্রধান টিটো কারনাভিয়ান জানান, দুটি মোটরসাইকেলে করে ওই পরিবারটি পুলিশ দপ্তরের সামনে চেকপেয়েন্টে এসে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটায়।

এতে ওই পরিবারটির চার সদস্য নিহত হলেও আট বছরের শিশুটি বেঁচে যায়, তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং সে দ্রুত সুস্থ্য হয়ে উঠছে বলে জানিয়েছে কারনাভিয়ান।

রোববার তিন গির্জায় হামলায় ১৩ জন নিহত হওয়ার পর হামলার দায় স্বীকার করেছিল জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য