আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধা-পলাশবাড়ি সড়ক সংলগ্ন টেলিফোনের অফটিক্যাল ফাইবার সংযোগ সড়ক উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত ঠিকাদারের গাফিলতিতে কাটা পড়েছে। ফলে গাইবান্ধা টেলিফোন এক্সচেঞ্জের ৭৮১টি টেলিফোনের এনডাব্লিউটি যোগাযোগ গত ৬ মে থেকে সপ্তাহব্যাপী বন্ধ রয়েছে। এতে গুরুত্বপূর্ণ সরকারি অফিসসহ অন্যান্য টেলিফোন গ্রাহকদের ক্ষেত্রে দেশে-বিদেশে কথাবার্তা বলায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

টেলিফোন এক্সচেঞ্জ সুত্রে জানা গেছে, গাইবান্ধা-পলাশবাড়ি সড়কে সম্প্রসারণের কাজ করতে গিয়ে সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঠিকাদারের নিয়োজিত শ্রমিকরা টেলিফোন সংযোগের মূল্যবান অফটিক্যাল ফাইবার লাইন কেটে দেয়। এব্যাপারে রংপুর থেকে টেলিফোন বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রকৌশলীরা কয়েকদিন যাবত ওই অফটিক্যাল ফাইবার সংস্কারের প্রচেষ্টা চালালেও এখন পর্যন্ত তা চালু করা সম্ভব হয়নি। তবে টেলিফোন এক্সচেঞ্জ সুত্রে জানানো হয় এনডাব্লিউডি সংযোগ চালু থাকলেও অভ্যন্তরীন টেলিফোন যোগাযোগ চালু রয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, গাইবান্ধা-পলাশবাড়ি সড়কে মাটির ৬ থেকে ৭ ফুট দূরত্বে ক্যাবল লাইনটি বসানোর সিডিউলে নির্ধারিত থাকলেও অনিয়ম করে সড়কের পাশে মাটির মাত্র আড়াই ফুট গভীরে টেলিফোন ক্যাবল লাইনটি স্থাপন করা হয়েছে। ফলে সড়ক উন্নয়নের কাজে প্রতিনিয়তই এধরণের সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এদিকে গাইবান্ধা টেলিফোন এক্সচেঞ্জের কোন কর্মতৎপরতা না থাকায় সরেজমিনে পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায়, একচেঞ্জের মাঠ জুড়েই এখন ধান শুকানোর কাজ চলছে।

এব্যাপারে জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল বলেন, টেলিফোন এক্সচেঞ্জের এনডাব্লিউটি সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় নানা সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এ বিষয়টি দ্রুত সমাধানের জন্য টেলিফোন বিভাগের উর্দ্ধতন কর্মকর্তার সাথে কথা বলেছেন। আশা করা যাচ্ছে তারা বিষয়টি দ্রুত নিষ্পত্তি করতে পারবেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য