সংবাদ সম্মেলনঃ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেপিআই ভিক্তিতে সারাদেশের ২১টি কলেজের মধ্যে রংপুর বিভাগের একমাত্র দিনাজপুর আদর্শ মহাবিদ্যালয়কে “মডেল কলেজ”র স্বীকৃতি প্রদান করায় আর্দশ কলেজ ও দিনাজপুরবাসী গর্ববোধ করছে জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে দিনাজপুর আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের আয়োজনে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কলেজের অধ্যক্ষ ড.সৈয়দ রেদওয়ানুর রহমান জানান,১৯৬৯ সালের ১লা সেপ্টেম্বর হতে নানা প্রতিকুলতার মাঝেও দায়িত্ববোধ ও সুনামের সাথে আর্দশ মহাবিদ্যালয় দিনাজপুরের শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা প্রদান করে আসছে।

তিনি জানান, কলেজ গর্ভনিংবোডি’র সভাপতি ও জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ ইকবালুর রহীম এমপি’র চৌকস নেতৃত্ব ও অন্যান্য সদস্যেদের সফল মনিটরিং কলেজের শিক্ষার গুনগত মাননোন্নয়নে ঘটিয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়য়ের কেপিআই ভিক্তিতে কলেজ পারফোরমেন্স র‌্যাংকিং-এ সারাদেশের ২১ কলেজের মধ্যে আর্দশ কলেজ ৭ম স্থান অর্জন করেছে। একই সাথে দিনাজপুর আর্দশ মহাবিদ্যালয় উত্তাঞ্চলের একমাত্র “মডেল কলেজ”র স্বীকৃতি প্রাপ্ত আমাদের গর্বকে অনেকগুন বাড়িয়ে দিয়েছে।

তিনি জানান, কলেজটির প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ ইকবালুর রহীম এমপি’র পিতা জননেতা এ্যাডভোকেট এম.আব্দুর রহীম দিনাজপুরের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে কাঁধে কাধ মিলিয়ে কাজ করেছেন যার ভুমিকা অনস্বীকার্য।

তিনি জানান, যে কারনে আদর্শ মহাবিদ্যালয় জাতীয় বিশ্বদ্যিালয়ের কেপিআই অর্ন্তভুক্ত হয়েছে সেগুলো হচ্ছে,সমৃদ্ধ শিক্ষা বান্ধব গর্ভনিং বোর্ডি,শিক্ষার অনুকুল পরিবেশ ও শিক্ষা কার্য্যক্রম,শিক্ষক-শিক্ষার্থী সংখ্যা,গ্রন্থাগার,সমৃদ্ধ বিজ্ঞান গবেষনাগার রয়েছে। বর্তমানে এ প্রতিষ্ঠানে এইচএসসি(বিজ্ঞান,মানবিক,ব্যবসায় শিক্ষা ও ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা),ডিগ্রী (পাস) কোর্স(বিজ্ঞান,মানবিক,ব্যবসায় শিক্ষা),১৩টি বিষয়ে ডিগ্রী অর্নাস কোর্স এবং পরবর্তী শিক্ষা বর্ষ থেকে আরো ২টি বিষয়ে অর্নাস কোর্স চালুর অপেক্ষায় রয়েছে। বর্তমানে শিক্ষার্থী সংখ্যা ৪ হাজার, ১০৫ জন শিক্ষক যা একটি ছোট বিশ্ববিদ্যালয় সমতুল্য। এই মহাবিদ্যালয়ে সংরক্ষন রয়েছে ২০ সহস্্রাধিক গ্রন্থ সম্বলিত একটি গ্রন্থাগার। এছাড়াও ১৩টি বিষয়ে অর্নাস বিভাগে বিভাগীয় সেমিনার লাইব্্ররী রয়েছে যেখানে প্রতিটি সেমিনার লাইব্রেরীতে কমপক্ষে ৩ হাজার গ্রন্থ রয়েছে। গর্ভনিংবোর্ডির সভাপতি মাননীয় হুইপ ইকবালুর রহীম গ্রন্থাগারটিকে বাংলাদেশের শ্রেষ্ট গ্রন্থাগারগুলির সারিতে নিয়ে যেতে মহাপরিকল্পনা গ্রহন করেছেন। এই অত্যাধুনিক গ্রন্থাগারে ই-লাইব্রেরীসহ নানা ধরনের আধুনিক সুবিধা থাকবে।

তিনি আরো জানান, এইচএসসি পর্যায়ে পাশের ৭৭% অনার্স পর্যায়ে পাশের হার ৯৯% এবং অর্নাস পর্যায়ে প্রতিটি বিষয়ে গড়ে ৫৫% শিক্ষার্থী প্রথম শ্রেনী পেয়ে উর্ত্তীন হয়। ফলশ্রুতিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পারপোমেন্স র‌্যাংকি-এ ২০১৬-তে আর্দশ কলেজ রংপুর বিভাগে ৭ম স্থান অধিকার করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,আর্দশ মহাবিদ্যালয়ের উপাধ্যক্ষ হাসিনা আখতার বানু, ব্যবস্থাপনা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক শাহ্ মিজানুর রহমান,ইংরেজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রভাষক মোছাঃ রুবি আফরোজ, রসায়ন বিভাগের প্রদর্শক পরিমল চক্রবর্ত্তী এবং রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রভাষক সাজ্জাদুল ইসলাম।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য