দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর শহরে ভারতে অনুষ্ঠিত “ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ” আইপিএল ক্রিকেট জুয়ায় বাজিকরদের তৎপরতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। শুধু শহরেই নয় ছড়িয়ে পড়েছে উপজেলাগুলোতেও।

খেলছে ওরা আর সর্বশান্ত হচ্ছে জনগন। আর এ জুয়াতে নিম্ব আয়ের মানুষ থেকে বিত্তমান মানুষেরাও খেলছে। এ ক্রিকেট জুয়াতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের বেশি দেখা যাচ্ছে। বিকেল ৪টা বাজার সাথে সাথেই টিভিতে আবার কেউ মোবাইলে ইন্টারনেটে মাধ্যমে খেলা শুরু হওয়া পর্যন্ত বসে থাকে।

এদিকে দিনাজপুর শহরের পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা(হঠাৎ পাড়া), পাহাড়পুর, বাহাদুর বাজার, কালিতলা, রামনগর, বালুবাড়ী, ঘাষিপাড়া, নিউটাউনসহ বিভিন্ন মহল্লায় এখন বিকেল হলেই জুয়ার আসর জমজমাট হচ্ছে। প্রতিটি হোটেলগুলোতেই এসব জুয়ারুরা তাদের ইচ্ছে মত বাজি ধরছে। অনেক এলাকায় এ জুয়াকে কেন্দ্র করে মারপিটের খবর পাওয়া গেছে।

এ সব ক্রিকেট জুয়ার আড্ডা খানা হচ্ছে চায়ের দোকান, মুদিখানাসহ হোটেলগুলোতে। কোন খেলায়ার কত রান করবে, কে কয়টা ছয় মারবে আবার কোন দল জিতবে তার হিসাব নিকাস আগে ভাগেই করে রাখছে। কেউ কেউ মোবাইলে সব দামদর ঠিক করে রাখছে।

এ ছাড়া ১ ওভারে কত রান করবে, ১০ ওভারে কয়টা উইকেট পরবে এভাবেও বাজি ধরা হচ্ছে। আর এতে বাজি ধরছে লাখ লাখ টাকা পর্যন্ত। আর এসব বাজিকর নিজেদের আড়াল করতে ১০০ টাকাকে ১ টাকা, ৫০০ টাকাকে ৫ টাকা, ১০০০ টাকাকে ১০ টাকা বলছে।

এই ক্রিকেট বাজিতে অনেকেই সর্বশান্ত হয়ে পড়ার খবর পাওয়া গেছে। কেউ আবার ঋন নিয়ে খেলা চালিয়ে যাচ্ছে। ঋনের টাকা শোধ করতে না পারায় প্রতিনিয়ত লাভ দিতে হচ্ছে।

এ সব জুয়া বন্ধে প্রশাসন প্রদক্ষেপ গ্রহন কামনা করছে দিনাজপুর জেলার সচেতন মহল।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য