দিনাজপুর সংবাদাতাঃ অল্প সময়ের মধ্যে শ্রমিক পুর্নবাসন ছাড়াই দেশে বিড়ি শিল্পগুলো বন্ধ করার সরকারী সিদ্ধান্ত গ্রহনের প্রতিবাদে দিনাজপুর বিড়ি ভোক্তা কমিটির মানববন্ধন কর্মসুচী পালন।

গতকাল সকালে বিড়ি শিল্পের সাথে জড়িত শ্রমিকরা তাদের রক্ষায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ প্রত্যাশা করে দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের সামনের সড়কে মানববন্ধন করেছে বিড়ি ভোক্তা কমিটির সদস্যরা ।

সংক্ষিপ্ত সমাবেশে শ্রমিক নেতৃবৃন্দরা বলেন, কিছুদিন আগে বিড়ি ও সিগারেট শিল্প বন্ধের জন্য অর্থমন্ত্রীর কিছু লিখিত সিদ্ধান্তÍ বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে। সেই লিখিত সিদ্ধান্তে উল্লেখ রয়েছে বিড়ি শিল্প ৩ বছর ও সিগারেট কোম্পানী গুলোকে আগামী ২২ বছরের মাথায় বন্ধ করা হবে।

এখানে বৈষম্যমুলক ভাবে বিড়ি শিল্পকে মাত্র ৩ বছরের সময় দেয়া হয়েছে। যে কারনে এতঅল্প সময়ের মধ্যে বিড়ি শিল্পের সাথে জড়িত লাখ লাখ শ্রমিক বিকল্প কর্মসংস্থান করতে পারবে না। সরকারের এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে শ্রমিকেরা পরিবার পরিজন নিয়ে চরম বিপদেও স্মুখীন হবে।

তারা বলেন, এই শিল্পগুলোর সাথে জড়িতদের বিকল্প কর্মসংস্থার ব্যবস্থা না করে এই সিন্ধান্ত আগামীতে বেকার সমস্যা আরো বাড়াবে। তাদের দাবি সিগারেটের মত বিড়ি শিল্প বন্ধেও সময়সীমা বৃদ্ধি করা হোক। যাতে করে সেখানে কর্মরত প্রতিনিধিরা অন্যত্র চাকুরী খোজা সহজ হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর বিড়ি ভোক্তা কমিটির আহ্বায়ক শরিফ উদ্দীন, যুগ্ন আহ্বায়ক শামসুল হক, সদস্য সচিব আশুতোষ কুন্ডুসহ সংস্লিষ্ট অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য