পূর্ব আফ্রিকার দেশ রুয়ান্ডায় ভূমিধসে অন্তত ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার দেশটির পশ্চিমাঞ্চলে ভারি বৃষ্টিপাতের পর ভূমিধসে অন্তত ১৫ জনের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফিলিপ হাবিনশুটি, খবর বিবিসির।

ভূমিধসে রাজধানী কিগালিতে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে কিগালির এক কর্মকর্তা বিবিসিকে জানিয়েছেন।

এ নিয়ে চলতি বছরের প্রথম চার মাসেই রুয়ান্ডায় ভারি বৃষ্টিপাত ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা অন্তত ২০০ জনে দাঁড়িয়েছে।

ভারি বৃষ্টিপাতের পর ভূমিধসে চাপা পড়া স্বজনদের খোঁজে স্থানীয়রা মাটি খুঁড়ে তল্লাশি চালিয়ে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

“অন্যান্য বছরগুলোর তুলনায় গত চার মাস ছিল ভয়াবহ রকম বাজে। খুবই আতঙ্কজনক,” বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন হাবিনশুটি।

‘হাজার পাহাড়ের দেশ’ হিসেবে পরিচিত রুয়ান্ডা আফ্রিকার ঘনবসতিপূর্ণ দেশগুলোর অন্যতম।

গত সপ্তাহে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রান্সিস কাবোনেকা বলেছিলেন, সরকার যেসব এলাকাকে ‘উচ্চ ঝুকিপূর্ণ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে সেখানকার অধিবাসীদের এলাকা ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়েছে। সরকারি আদেশ না মানলে তাদের জোর করে সরানো হবে বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

ভারি বৃষ্টিপাতে পূর্ব আফ্রিকার দেশ কেনিয়া, সোমালিয়া ও উগান্ডায়ও বন্যা দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য