আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ ঢাকায় গ্রীনলাইন পরিবহনের বাস চালক কর্তৃক প্রাইভেট কার চালক রাসেল সরকারকে (২৮) পঙ্গু করার প্রতিবাদে গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে স্থানীয় চৌমাথা মোড়ে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পলাশবাড়ী রিপোর্টার্স ইউনিটির উদ্যোগে সোমবার সকাল ১১টায় ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে উপজেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, খেলোয়ার কল্যাণ সমিতি, উজ্জীবন সংগীত ও নাট্য শিক্ষাঙ্গন, উপজেলা গণজাগরণ মঞ্চ, প্রয়াস থিয়েটার, পলাশবাড়ী থিয়েটার, স্বাধীন পলাশ নাট্য সংস্থা, সুর ঝংকার সংগীত একাডেমী, জাতীয় রিক্সা-ভ্যান শ্রমিকলীগ, মাইক্রাবাস ও কার চালক শ্রমিক সমিতি ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনতা অংশগ্রহণ করেন।

উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন, প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক দুদু, সময় টিভি’র স্টাফ রিপোর্টার হেদায়েতুল ইসলাম বাবু, নিবিড় ক্যান্সার হেলথ এন্ড এডুুকেশন সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক আব্দুল্যা-আল-মামুন, সাবদিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নির্মল মিত্র, মহিলা মাদ্রাসার প্রভাষক জহির উদ্দিন হাওলাদার, আদর্শ ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক আনোয়ার হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ আহবায়ক শেখ শামছুজ্জামান হিটু শেখ শামসুজ্জোহা হিটু, বাসদ সমন্বয়ক অলিউজ্জামান বাদল, মুক্তিযোদ্ধা হায়দার আলী, সাংবাদিক হাসিবুর রহমান স্বপন ছাড়াও শহিদুল ইসলাম, মিজানুর রহমান নিক্সন, রবিউল ইসলাম লিয়াকত ও মিল্লাত সরকার মিলন প্রমুখ।

অবিলম্বে বক্তরা আহত রাসেল সরকারের সুচিকিৎসা ও পরিবার-পরিজনের ক্ষতিপুরনসহ ঘাতক গ্রীনলাইন বাস চালকের দ্রুত শাস্তির দাবী করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৮ এপ্রিল রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী হানিফ ফ্লাইওভারের ঢালে গ্রীনলাইন পরিবহনের সাথে একটি প্রাইভেট কারের দূর্ঘটনার সৃষ্টি হয়। এতে ওই দূর্ঘটনায় পলাশবাড়ী উপজেলার মহদীপুর ইউনিয়নের পাবর্তীপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে প্রাইভেট কার চালক রাসেল সরকারের বাম ‘পা’ কেটে ফেলা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য