গত বছর মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা (এনএসএ) ৫৩৪ মিলিয়ন ফোন কল ও বার্তা সংগ্রহ করেছে। ২০১৬ সালের তুলনায় এই সংখ্যা প্রায় তিনগুণ বেশি। শুক্রবার প্রকাশিত একটি মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনের সূত্রে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

রয়টার্স জানায়, ২০১৫ সালে এই ধরনের নজরদারিমূলক তথ্য সংগ্রহের সীমা নির্ধারণ করে এনএসএ-তে নতুন নজরদারি সিস্টেম চালুর দ্বিতীয় বছরেই তা বেড়ে গেছে তিনগুণ। ২০১৫ সালে এ সংক্রান্ত আইন প্রণয়নের পরের বছর ১৫১ মিলিয়ন ফোন রেকর্ড ও টেক্সট মেসেজ সংগ্রহ করে এনএসএ।

২০১৩ সালে মার্কিন গোয়েন্দা তথ্য ফাঁস করে আলোচনায় আসেন এডওয়ার্ড স্নোডেন। তিনি গোয়েন্দা প্রতিষ্ঠানের হয়ে রেকর্ড করা এসব তথ্য ফাঁস করে দেন। রয়টার্স বলছে, নজরদারির নতুন ব্যবস্থা চালুর পর ২০১৭ সালে প্রতিদিন যে পরিমাণ ফোন রেকর্ড সংগ্রহ করা হয়েছে, ২০১৩ সালের তুলনায় সেই পরিমাণ অনেকটাই কম।

এনএসএ-র সংগ্রহ করা তথ্যের মধ্যে ফোন নম্বর এবং ফোন ও টেক্সট করবার সময় থাকলেও তাতে কী বলা হয় বা লেখা হয় তার উল্লেখ থাকে না।

এনএসএ-র পরিচালকের কার্যালয়ের মুখপাত্র টিমোথি ব্যারেট এক বিবৃতিতে বলেন, যে পদ্ধতিতে তথ্য সংগ্রহ করত এবং বিস্তারিত তথ্য পাওয়ার কর্তৃত্বে কোনও পরিবর্তন আনেনি সরকার। তিনি বলেন, আমরা আশা করছি নজরদারির আওতায় আসা ফোন রেকর্ডের সংখ্যা বছর বছর পরিবর্তন হতে পারে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য