সিরিয়ার বেসরকারি দাতব্য সংগঠন হোয়াইট হেলমেট বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র তাদের সাহায্য বন্ধ করে দিলেও তারা উদ্ধার কার্যক্রম চালিয়ে যাবে।

খবরে বলা হয়েছে, অনুসন্ধান ও উদ্ধারকাজে হোয়াইট হেলমেটকে দেয়া সহায়তা স্থগিত করে সক্রিয় পর্যালোচনার মধ্যে রাখা হয়েছে।

সংস্থাটির প্রধান রায়িদ সালেহ বলেন, তারা যুক্তরাষ্ট্র কিংবা অন্যা কোনো দেশ থেকে সরাসরি সাহায্য গ্রহণ করেনি। তারা বিভিন্ন সংগঠন ও সংস্থার কাছ থেকে সহায়তা পেয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হবে না। সংগঠনের যেসব কার্যক্রম চলছে, তা বন্ধ করা হবে না। আমাদের স্বেচ্ছাসেবীরা এখনও মাঠপর্যায়ে সক্রিয় রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সিবিএসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হোয়াইট হেলমেটকে এক-তৃতীয়াংশ তহবিল সরবরাহ করত। বর্তমানে তা সক্রিয় পর্যালোচনার মধ্যে রাখা হয়েছে।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক অভ্যন্তরীণ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিকট প্রাচ্যবিষয়ক ব্যুরো যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ইরাক, লিবিয়া ও ইয়েমেনে নীতি নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তাদের পক্ষ থেকে হোয়াইট হেলমেটকে তহবিল সরবরাহ করতে ১৫ এপ্রিল ট্রাম্প প্র্রশাসনের সবুজ সংকেত চাওয়া হয়েছিল।

গত মাসে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে হোয়াইট হেলমেটকে দেয়া ২০ কোটি ডলার স্থগিত করার নির্দেশনা দিয়েছে হোয়াইট হাউস।

এর আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, শিগগিরই সিরিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্র সরে আসবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য