খ্রিস্টান নাগরিকদের জন্য দেশটিতে গির্জা স্থাপন করতে ভ্যাটিকান সিটির সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে সৌদি আরব। মিসরীয় সংবাদমাধ্যম ইনডিপেন্ডেন্টের বরাত দিয়ে আল জাজিরা লিখেছে, ভ্যাটিকানের আন্তঃধর্ম সংলাপ বিষয়ে নিয়োজিত পন্টিফিকাল কাউন্সিল জ্যান লুইস তুরান গত এপ্রিলে সৌদি আরব সফরে গিয়েছিলেন। সেখানেই জ্যান লুইস তুরান ও ‘মুসলিম ওয়ার্ল্ড লিগের’ আব্দেল করিম আল ঈসার মধ্যে গির্জা বানানোর ওই চুক্তি হয়ে থাকতে পারে।

সৌদি আরবে গির্জা স্থাপনের বিষয়ে সরাসরি মন্তব্য না করে ভ্যাটিকান নিউজকে তুরান বলেছিলেন, একটি ঘোষণা সম্পাদন করা হয়েছে যা ভবিষ্যতে আরও বেশি সংলাপ অনুষ্ঠানের পথ তৈরি করে দেবে। সৌদি আরব সফরে যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক হয়েছিল জ্যান লুইস তুরাননের। সেখান থেকে ফিরে তিনি ভ্যাটিকান রেডিওকে জানিয়েছিলেন, ‘বিদ্যালয়ে খ্রিস্টান ও অমুসলিমদের সম্পর্কে ভালো কথা বলা এবং তাদেরকে কখনওই দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক হিসেবে বিবেচনা না করার বিষয়ে জোর দিয়েছিলাম আমি।

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল লিখেছে, ভ্যাটিকান ও সৌদি আরব, কোনও পক্ষই গির্জা বানানোর বিষয়ে করা প্রশ্নের জবাব দেয়নি। সৌদি আরবে গির্জা বানানোর খবরটির বিষয়ে আল জাজিরা নিজস্ব সূত্রে নিশ্চিত হতে পারেনি। তবে মিসরীয় সংবাদ মাধ্যমের বরাত দিয়ে দেওয়া ওই সংবাদে তারা উল্লেখ করেছে, সৌদি আরবে ইসলাম ছাড়া অন্যান্য ধর্ম পালন নিষিদ্ধ।ডেইলি মেইল লিখেছে, ওই অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে শুধু সৌদি আরবেই গির্জা নেই।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য