বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ॥ বীরগঞ্জে নির্মানাধিন ড্রেনে পরে স্কুল ছাত্র মারফিন সালব গুরুত্বর আহত ॥ লোহার রড গালে ঢুকে চোখের নীচে ও চোয়ালের উপরের হাড় খন্ড খন্ড ভাবে ভেঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে ॥ সে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

বীরগঞ্জ পৌরসভার পুরাতন কার্যালয় সংলগ্ন রাস্তায় কোন প্রকার ব্রেরিকেট তৈরী না করেই ড্রেন নির্মান কাজ পরিচালনা করার এক পর্যায়ে গত ২৮ এপ্রিল রাতে একই এলাকার আমিনুর রহমানের একমাত্র ছেলে ৭ম শ্রেণীর ছাত্র মারফিন সালব প্রাইভেট পড়ে রাতে বাই সাইকেলযোগে বাড়ী ফেরার পথে স্লিপ করে উন্মুক্ত ড্রেনে পড়ে যায়। এ সময় একটি লোহার রড গাল দিয়ে ঢুকে মুখের উপরের চোয়ালে গিয়ে চোখের নীচের হাড় সহ মুখের উপরের চোয়ালের হাড় খন্ড খন্ড ভাবে ভেঙ্গে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

তাৎক্ষনিক ভাবে শিশুটিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। প্রাথমিক চিকিৎসার পর শিশুটিকে দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। মারফিন সালব এর অস্ত্রোপচার করা হয়েছে।

আহত শিশুর অভিভাক ও প্রত্যক্ষদর্শির অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, পৌর সচিব আব্দুল হানিফ সরদার ও প্রকৌশলী নুরুজ্জামান বেশী লাভের আশায় জনৈক ঠিকাদার সংস্থার নির্মান কাজে নানা ভাবে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে তাকে এলাকা থেকে বিতারিত করে আংশিক নির্মান কাজ নি¤œ শ্রেণীর কর্মচারী ও সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলর দিয়ে নি¤œমানের কাজ করতে গিয়ে খামখেয়ালি ও আলশেপনার কারনে এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসী এ দুর্ঘটনার পর রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। ঐবদ্ধ জনতা ড্রেন নির্মান কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য