পপসম্রাজ্ঞী ম্যাডোনা ও প্রয়াত র‍্যাপার টুপাকের প্রেমপত্র আর গোপন রাখা গেল না। মামলায় হেরে গেলেন ম্যাডোনা। তাঁর এই প্রেমপত্র এখন নিলামে বিক্রি হতে আর কোনো বাধা নেই।

ম্যাডোনাকে র‍্যাপার টুপাক ১৯৯৫ সালে একটি প্রেমপত্র লিখেছিলেন। সেই চিঠির মধ্যে ছিল এই দুজনের প্রেম ভাঙার আভাস। ম্যাডোনার উদ্দেশে টুপাক লিখেছিলেন, ‘তুমি হয়তো একজন কৃষ্ণাঙ্গ শিল্পীর সঙ্গে প্রেম করে অনেক সম্মান অর্জন করতে পারবে। কিন্তু আমি শ্বেতাঙ্গ কারও সঙ্গে প্রেম করলে এটা আমার ভক্তরা ভালোভাবে নেবে না।’

এই প্রেমপত্রটি ছিল ম্যাডোনার একসময়ের ঘনিষ্ঠজন ডারলেন লুৎজের কাছে। এই চিঠিসহ ম্যাডোনার আরও কিছু ব্যক্তিগত সামগ্রী গত বছর নিলামে তোলার ঘোষণা দেন লুত্জ। এরপরই এ ব্যাপারে অবগত হন ম্যাডোনা। একান্ত ব্যক্তিগত কিছু জিনিস নিলামে উঠছে দেখে আদালতে মামলা ঠুকে দেন তিনি।

অভিযোগ করেন, ম্যাডোনার অজান্তেই তাঁর একান্ত ব্যক্তিগত সামগ্রী নিলামে তুলে শিল্পীর ব্যক্তিজীবনে হস্তক্ষেপ করেছেন ডারলেন লুত্জ। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গত নিলাম থেমে যায়।

গত সোমবার জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের আদালত নিলামের ওপর জারি হওয়া নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছেন। ম্যাডোনার অভিযোগকে বলা হয়েছে, ‘ব্যক্তিগত রোষ’-এর বহিঃপ্রকাশ। কিন্তু মামলায় হেরে এখনো কোনো মন্তব্য দেননি ম্যাডোনা। তবে মামলায় জয়ী ডারলেন লুত্জ জানিয়েছেন, আগামী জুনেই ম্যাডোনা-টুপাকের প্রেমপত্রটি নিলামে উঠবে। এই চিঠি লেখার ১৮ মাস পর টুপাক আততায়ীর গুলিতে নিহত হন। বিবিসি

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য