গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে মেলা খরচের টাকা না পেয়ে নববধূকে মারপিট অতঃপর বাথরুম থেকে ঝুলান্ত লাশ উদ্ধার করেছে।

জানা গেছে, উপজেলার গুমানীগঞ্জ ইউপির মিরকুচি মদনতাইড় গ্রামের চুন্নু মিয়ার পুত্র মুনিম এর বিবাহিতা স্ত্রী র্উমী বেগম (২০) এর নিকট তার স্বামী গত শুক্রবার রাতে বৈশাখী মেলা খরচের জন্য ১০ হাজার টাকা চাইলে উরমী বেগম তার বাবাকে মোবাইল ফোনে জানায়।

একপর্যায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয় এবং নববধুকে মারপিট করে। পর দিন আজ শনিবার সকাল ৯টায় বাথরুম থেকে উর্মীর ঝুলান্ত লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করেছে।

নিহত উর্মী একই উপজেলার কোচাশহর ইউপির জগনাথপুর গ্রামের আজাদুল ইসলাম রাজা মিয়ার কন্যা। গত ৭/৮ মাস পূর্বে তাদের বিয়ে হয়।

এদিকে পরিবারের অভিযোগ মুনিম মাঝে মধ্যেই টাকা দাবী করে উর্মীকে মারপিট করে আসতো। গত রাতেও বৈশাখী মেলা করার জন্য ১০ হাজার টাকা দাবী করলে উর্মী রাতে বাবার নিকট মোবাইল ফোনে জানিয়েছে।

টাকা না পেয়ে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ার পর রাতেই উর্মীকে স্বাসরোদ্ধ করে হত্যা করে আত্মহত্যা দেখানোর জন্য পরিবারের লোকজন গলায় ওরনা বেঁধে বাথরুমের ভিতর রাখা হয়েছে বলে মেয়ের পরিবার অভিযোগ করেছে। ঘটনার পর থেকে মুমিনের পরিবারের লোকজন পালিয়েছে।

অপরদিকে পুলিশ জানিয়েছেন, লাশের শরিরে মারপিটের চিহ্ন রয়েছে। তবে ময়না তদন্তের পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য