দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুরে এবারেই প্রথম এতিমদের চাইজিন উৎসব পালিত হল। আর এই ব্যতিক্রমধর্মী উৎসবের আয়োজক ছিলেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি। সম্প্রতি রংপুর বিভাগীয় ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠানে প্রায় ১ হাজার এতিম ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশুরা স্বপ্ন দেখেন তারা চাইনিজ খাবেন।
এ অনুভব ধারন করে হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি ১৭ এপ্রিল দিনাজপুরে রংপুর বিভাগের ৮ জেলার ১১টি প্রতিষ্ঠানের সরকারি শিশু পরিবারের প্রায় ১ হাজার এতিম ও প্রতিবন্ধীদের চাইনিজ খাওয়ান। এতিম ও প্রতিবন্ধীদের এই অনুষ্ঠান উৎসবে পরিনত হয়। আনন্দে আত্মহারা হয়ে উঠে শিশুরা।

এই চাইনজ উৎসবে উপস্থিত ছিলেন, দিনাজপুর সমাজ সেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক স্টিফেন মুর্মু, দিনাজপুর সরকারী শিশু পরিবারের উপ-তত্ত্বাবধায়ক মাহমুদা নুসরাত জাহান, লালমনির হাট সমাজ সেবার উপ-পরিচালক মোশারফ হোসেন, রংপুরের উপ পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ। সার্বিক তত্ত্ববধানে ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন।

এ ছাড়া উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মানিক রঞ্জন বসাক, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য রাকিবুল মিথুন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর ইসলাম রাহুল ও শহর স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক শাহ মোঃ রেজওয়ান উর রহমান পলাশ। এ ব্যাপারে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, অবহেলিত নির্যাতিত, নিপীড়িত মানুষের বন্ধু হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই দিনাজপুরে এতিম, অসহায় পিতা মাতা ও প্রতিবন্ধীদের পড়ালেখা, চিকিৎসা, বাসস্থান সহ সকল সমস্যা সমাধান করা হয়েছে। পাশাপাশি আমি নিজেই ঈদুল ফিতরে নতুন কাপড়, সেমাই, চিনি ও ঈদুল আযহায় কুরবানীর গরুসহ সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়। এতিম ও প্রতিবন্ধীরা প্রতিটি উৎসব পালন করে। তাদের বুঝতে দেয়া হয় না তরা এতিম, প্রতিবন্ধী ও অসহায় পিতা মাতা। তিনি বলেন, এটা কোন রাজনৈতিক দৃষ্টি নয়, মানবসেবার একটি দৃষ্টান্ত।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য