বাঁচানো গেল না সড়ক দুর্ঘটনায় আহত বালিয়াডাঙ্গীর শরিফাকে। শরিফা আক্তার পান্না গত শনিবার রাত ১১টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিতসাধীন অবস্থায় মারা যান।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, পাগলু (থ্রি-হুইলার) এ করে ঠাকুরগাঁও যাচ্ছিলেন শরিফা আক্তার পান্না (৪৩) অপরদিক থেকে ছুটে আসা ইজি বাইকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলে তিনি গুরুতর আহত হন। শেষ চেষ্টা করেও বাঁচানো গেল না সড়ক দুর্ঘটনায় আহত শরিফাকে।

গত শনিবার রাত ১১টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিতসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। গত শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৫ টায় বালিয়াডাঙ্গী হতে ঠাকুরগাঁও যাওয়ার পথে আর্ট গ্যালারী মোড়ে এ সড়ক দূর্ঘটনা সংঘটিত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি সাজেদুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। রোববার বিকেলে নিহতের স্বজনদেও কাছে রাশ হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় বালিয়াডাঙ্গী থানায় রোববার দুপুরে একটি অপমৃত্যু মামলাও হয়েছে বলেও জানান তিনি।

নিহত শরিফা আক্তার পান্না মুক্তিযোদ্ধার কন্যা ও লাহিড়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি, বিশিষ্ট ঔষধ ব্যবসায়ি “আমান মেডিকেল ষ্টোর” এর মালিক আলাল আক্তার এর সহধর্মীনি।

তিনি ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি পদপ্রার্থী এবং মহিলা দলের সক্রীয় সদস্য ছিলেন। তিনি ৩ পুত্র ও ১ কন্যা সন্তানসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান।

গতকাল রোববার বাদ আসর তার জানাযা নামাজ অনুষ্ঠিত হবে এবং পরে চাকদহ গ্রামে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য