দিনাজপুর সংবাদাতাঃ দিনাজপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সিদ্দিক গজনবী ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তিকাল করেছেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, দুই মেয়ে ও অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

তাঁর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ মার্চ রাত ৯টায় সিদ্দিক গজনবী দিনাজপুর শহরের কাচারী রেলঘুন্টি এলাকায় ট্রেনের ধাক্কায় আহত হলে প্রথমে তাঁকে দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে এবং পরে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে পরের দিন ৭ মার্চ সকালে এয়ার এ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়।

সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য গত ১৮ মার্চ জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সিদ্দিক গজনবীকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়। এতো দিন তিনি সিএমএইচ-এর এনেস্থেসিওলোজী বিভাগের ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২ এপ্রিল বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় তিনি ইন্তিকাল করেন।

তাঁর লাশ সিএমএইচ-এর হিমঘরে রাখা হয়েছে। তাঁর ৩ সন্তানের মধ্যে এক ছেলে ও এক মেয়ে অস্ট্রেলিয়ায় থাকেন। তারা দেশে ফিরে আসার পর তাঁর জানাজা ও দাফন সম্পন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

বিভিন্ন মহলের শোকঃ
এদিকে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার সিদ্দিক গজনবীর মৃত্যুতে তাৎক্ষনিকভাবে শোক জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জনশীল গোপাল, দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম, দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক ইত্তেফাক’ স্টাফ রিপোর্টার মো. মতিউর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক প্রতিভার সম্পাদক ও প্রকাশক আবু সাঈদ আহমেদ কুমার, দিনাজপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওাহেদুল আলম আর্টিষ্ট, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহিন হোসেনসহ বিভিন্ন মহল। এছাড়া আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শোক প্রকাশ করেছেন। শোক বার্তায় নেতৃবৃন্দ মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য