নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় রেল লাইন হতে আরিফুল ইসলাম ভাদ্দি (২৪) নামে এক যুবকের দ্বি-খন্ডিত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ডোমার-চিলাহাটি রেল লাইনের বসুনিয়াপাড়া পুলেরপাড় হতে সৈয়দপুর জিআরপি থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

সে উপজেলার বোড়াগাড়ি ইউনিয়নের বাগডোগড়া বসুনিয়াপাড়া এলাকার আহমেদ আলীর ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লাশের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ভারী দা বা ছুড়ির আঘাতের মত ক্ষত রয়েছে। হয়তো তাকে হত্যা করে রেল লাইনে ফেলে রাখা হয়েছিলো।

নিহতের বাবা আহমেদ আলী বলেন, আমি ও আমার ছেলে রাতে সেচপাম্পের ঘড়ে একসাথে থাকি। সোমবার রাত সাড়ে আট টার দিকে ভাত খেয়ে প্রতিদিনের ন্যায় বাড়ির পাশ্বে ধান ক্ষেতে সেচ দেওয়ার জন্য যায় সেচপাম্প ঘরে যায়। আমি বাড়ীতে এসে নামাজ পরে সেচপাম্প ঘড়ে গিয়ে দেখি ঘড়ে তালা লাগা।

সেখানে রাত ১১ টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে বাড়ী ফিরে এসেও দেখি বাড়ীতেও সে আসেনি। তখন আমার বড়ছেলেকে সাথে নিয়ে অনেক খোঁজাখুজির পর সেচপাম্পের ঘড় হতে হতে প্রায় পাচশত গজ দুরে রেল লাইনের উপর আমার ছেলের দ্বি-খন্ডিত লাশ পড়ে থাকতে দেখতে পাই।

কিন্তু তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থনে কাটা ক্ষত রয়েছে। হয়তো তাকে কেউ মেরে ফেলে রেল লাইনের উপর ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে।স্থানীয়রা জানায়,আরিফুল সহজ-সরল প্রকৃতির ছেলে সকলের সাথে রয়েছে তার মিল। তার কোন শক্রু নেই। হয়ত রেললাইনে অবৈধ কিছু সে দেখে ফেলেছে এজন্য তাকে হত্যা করে লাশ রেললাইনে ফেলে যায় তারা।

সৈয়দপুর জিআরপি থানার উপ-পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা মঙ্গলবার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছেন। তিনি জানান, অনেক সময় টেনে কাটা যাওয়ার সময় পাথরের আঘাতে কাটা যাওয়ার মতো ক্ষত হয়। ময়না তদন্তের পর সঠিক তথ্য জানা যাবে।

ডোমার থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো: মোকছেদ আলী মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য