লক্ষ্নৌ থেকে বেঙ্গালুরু ফেরার জন্য সোমবার সকালে ইন্ডিগোর বিমানে উঠেছিলেন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ সৌরভ রাই।বিমানে উঠে তিনি ক্রুদের অভিযোগ করেন, ভেতরে মশা রয়েছে।অথচ সমস্যা তো মেটানো হয়নি, উল্টে বিমানের কর্মীরা তাকে জোর করে বিমান থেকে নামিয়ে দেন।

জানা যায়, ভোর ছয়টার বিমানে উঠেছিলেন ওই চিকিৎসক। বিমানে উঠে তিনি ক্রুদের বলেন, ভেতরে মশা রয়েছে, প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিন। কিন্তু ইন্ডিগো কর্মীরা সমস্যা মেটানোর বদলে তাকে চুপচাপ বসে থাকতে বলেন। এরপর দু’তরফের ঝামেলা শুরু হয়। তখনই বিমান কর্মীরা তাকে নেমে যেতে নির্দেশ দেন বলে অভিযোগ, বলেন, রানওয়ে থেকে টার্মিনালে হেঁটে যেতে হবে।

এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন অভিযোগকারী। তাঁর দাবি, ইন্ডিগো কর্মীরা তাঁকে ‘জঙ্গি’ বলেছেন, বলেছেন, তিনি নাকি অন্য যাত্রীদের পক্ষে বিপদ। এছাড়া বিমানের কর্মীরা নাকি আরো বলেছেছেন, মশার সঙ্গে থাকতে না পারলে ইন্ডিয়া ছেড়ে দেয়া উচিত তার।

অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করে ইন্ডিগো কর্তৃপক্ষ বলেন, সৌরভ রাইয়ের ব্যবহারের জন্যই কর্মীরা তাঁকে নামিয়ে দিতে বাধ্য হন। তিনি হুমকি দিচ্ছিলেন, অন্য যাত্রীদেরও উসকানি দেন বিমান ভাঙচুরের জন্য। বিমান ছিনতাইয়ের মত শব্দও ব্যবহার করেন তিনি। তাই অন্য যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে নামিয়ে দেওয়া হয় তাকে।

এদিকে ভারতের সিভিল এভিয়েশন মন্ত্রী মঙ্গলবার জানান, ‘লক্ষ্নৌ বিমানবন্দরে ইন্ডিগো বিমান থেকে যাত্রী নামিয়ে দেয়ার ঘটনা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি করেছি।’ এনডিটিভি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য