দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীর পোশাকধারী সৈন্যদের গুলিতে প্রতি তিন দিনে একজন ফিলিস্তিনি শিশু নিহত হচ্ছে। ফিলিস্তিনি জাতিমুক্তির আন্দোলন ইন্তিফাদার দ্বিতীয় পর্বের শুরু থেকে গত ১৮ বছর ধরে চলছে এই হত্যাকাণ্ড।

জেনেভাভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা ডিফেন্স ফর চিলড্রেন ইন্টারন্যাশনালের নতুন এক জরিপে উঠে এসেছে ইসরায়েলের চালানো এই হত্যাযজ্ঞের ভয়াবহতা। সংস্থাটির বরাতে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সির জানিয়েছে, ২০০০ সালের সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় ইন্তিফাদার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দুই হাজার ফিলিস্তিনি শিশুকে হত্যা করেছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী।

৫ এপ্রিল ফিলিস্তিনি শিশু দিবস উপলক্ষ্যে নতুন এই রিপোর্ট প্রকাশ করে ডিফেন্স ফর চিলড্রেন ইন্টারন্যাশনাল। ২০০০ সালের সেপ্টেম্বরে ফিলিস্তিনি জনতার প্রতিরোধ আন্দোলন দ্বিতীয় ইন্তিফাদা শুরু হলে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর সহিংসতা জোরালো করে।

ডিফেন্স ফর চিলড্রেন ইন্টারন্যাশনালের ফিলিস্তিনি শাখার পরিচালক আয়েদ কুটিশ আনাদোলু এজেন্সিকে বলেছেন, ইসরায়েল প্রতিবছর প্রায় সাতশো ফিলিস্তিনি শিশুকে গ্রেফতার করে কারাবন্দি করে। তার অভিযোগ দখলদার বাহিনী ফিলিস্তিনি শিশুদের উপহাসমুলক আদালতে উপস্থাপন করে আর খারাপ আচরণ করে তাদের কাছ থেকে স্বীকারোক্তি আদায় করে থাকে।

সংস্থাটির সর্বশেষ রিপোর্ট অনুযায়ী দ্বিতীয় ইন্তিফাদা শুরুর পর থেকে ১৪ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি শিশুকে দখলদার কর্তৃপক্ষ। এসব শিশুদের ৩৫০ জন এখনও ইসরায়েলের কারাগারে আটক রয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য