কৃষ্ণসার হরিণ হত্যার অভিযোগ উঠেছিল সালমান খান ছাড়াও সাইফ আলি খান, টাব্বু, নীলম, সোনালি বেন্দ্রের বিরুদ্ধে । যোধপুরে হাজির হয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে মেজাজ হারালেন সাইফ।

ভারতীয় বণ্যপ্রাণ সংরক্ষণ আইনের ৫১’র ধারায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন সালমান। বিরল প্রজাতির কৃষ্ণসার হরিণ হত্যার অভিযোগ উঠেছিল সালমান খান ছাড়াও সাইফ আলি খান, টাবু, নীলম, সোনালি বেন্দ্রের বিরুদ্ধে।বাকি চারজন বেকসুর খালাস পেলেও মুখ্য অভিযুক্ত সালমান দোষী সাব্যস্ত।

কৃষ্ণসার হত্যা মামলায় রায় ঘোষিত হবে ৫ এপ্রিল সেই নিয়ে বলিউডে শুরু হয় নানান আলোচনা।

জিনিউজ সূত্রে খবর, মুম্বাই ছেড়ে রাজস্থানের যোধপুরে হাজির হন সালমান খান, সাইফ আলি খান, নীলম, টাব্বু এবং সোনালি বেন্দ্রে।

বলিউড তারকাদের সঙ্গে সঙ্গে সেখানে ভিড় বাড়তে শুরু করে গণমাধ্যমকর্মীদেরও।

সালমান, টাব্বু, সোনালি বেন্দ্র্রে সাংবাদিকদের এড়িয়ে গেলেও সাইফ আলি খানের গাড়ির সামনে ভিড় জমাতে শুরু করেন সাংবাদিক থেকে শুরু করে অসংখ্য সাধারণ মানুষ।

সাইফ সাংবাদিকদের মুখোমুখি না হয়ে গাড়ির চালককে ধমক দেন । গাড়ির কাচ উপরে তুলে দিয়ে জায়গা ছেড়ে অন্যত্র যাওয়ার নির্দেশ দেন । এও বলেন,“ না গেলে পিঠে মার পড়বে ।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য