যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়া থেকে ‘খুব শিগগিরই’ মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে বলে গত সপ্তাহে ঘোষণা করলেও আপাতত তা হচ্ছে না বলেই ইঙ্গিত দিয়েছে হোয়াইট হাউজ।

ট্রাম্প অনিচ্ছা সত্ত্বেও জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) পুরোপুরি পরাজিত না হওয়া পর্যন্ত সিরিয়ায় সেনা রাখতে রাজি হয়েছেন বলে জানিয়েছেন এক প্রশাসনিক কর্মকর্তা।

সিরিয়ায় আইএস প্রায় নির্মূল হয়ে এসেছে এবং সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযানও ‘দ্রুতই শেষ হয়ে আসছে’ বলে হোয়াইট হাউজ বুধবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে। তবে সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহারের কোনো সময়সীমা উল্লেখ করেনি।

বিবৃতিতে কেবল বলা হয়, “সিরিয়ায় আইএস এর যতটুকু দৌরাত্ম এখনো আছে তাও শেষ করতে যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্ররা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।”

ট্রাম্প গত সপ্তাহে সিরিয়া থেকে অবিলম্বে মার্কিন সেনা ফিরিয়ে আনার ঘোষণা দিলেও তার উপদেষ্টারা এর ফলে সেখানে জিহাদিদের পুনরুত্থানের ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনায় ওই পরিকল্পনা থেকে পিছু হটতে ট্রাম্পকে রাজি করান।

ট্রাম্প প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা এনবিসি নিউজকে বলেছেন, মঙ্গলবার জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গে এক বৈঠকে ট্রাম্প সিরিয়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য সেনা রাখতে রাজি হয়েছেন।

কুর্দি এবং আরব মিলিশিয়া ‘সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স’ (এসডিএফ) জোটের সমর্থনে সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে মোতায়েন আছে প্রায় ২ হাজার মার্কিন সেনা।

যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলার সহায়তায় এসডিএফ যোদ্ধারা গত তিন বছরে বহু এলাকা থেকে আইএস কে বিতাড়িত করেছে। প্রায় ৯৫ শতাংশ এলাকাই আইএস এর হাতছাড়া হয়ে গেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য