আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: কুকুরের আক্রমণের প্রতিশোধ নিতে কুকুরের মালিক স্কুল শিক্ষক অমলেন্দু বর্মণ রতনের পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (২রা এপ্রিল) দুপুরে আহত ওই স্কুল শিক্ষককে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে সকালে ওই স্কুল শিক্ষকের একটি কুকুর তার প্রতিবেশী আব্দুল মান্নানকে আক্রমণ করেন। এ ঘটনার পর আব্দুল মান্নানের পুত্র ফরহাদ হোসেন কুকুরের মালিক ওই স্কুল শিক্ষকের ওপর হামলা চালায়। হামলায় স্কুল শিক্ষকের পা ভেঙে গেছে।

আহত শিক্ষক অমলেন্দু বর্মণ রতন জেলার আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের মহিষাশ্বর গ্রামের কল্পনাথের পুত্র ও মহিষখোচা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, স্কুল শিক্ষক অমলেন্দু বর্মণের বাড়ির একটি কুকুর সোমবার সকালে প্রতিবেশী আব্দুল মান্নানকে আক্রমণ করে। বিষয়টি জানতে পেরে মান্নানের ছেলে ফরহাদ হোসেন প্রতিশোধ নিতে কুকুর মালিক স্কুল শিক্ষক অমলেন্দু বর্মণের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে লাঠি নিয়ে ধানক্ষেতে কাজে থাকা অমলেন্দুর ওপর হামলা চালায়। এতে ওই শিক্ষকের পা ভেঙে যায়।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে আদিতমারী হাসপাতালে পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করান।

আহত শিক্ষক অমলেন্দু বর্মণ জানান, কাজে ব্যস্ত থাকা অবস্থায় হঠাৎ ফরহাদ এসে কিছু বুঝে উঠার আগেই লাঠি দিয়ে মারপিট শুরু করে। তিনি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. তানিয়া তাসনিম মুনমুন জানান, ওই শিক্ষকের পায়ের হাড়ে চিড় ধরেছে। চিকিৎসা চলছে সুস্থ হতে বেশ কিছুদিন সময় লাগবে।

আদিতমারী থানার ওসি হরেশ্বর রায় জানান, এ ঘটনায় কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য