আমদানি করা মার্কিন পণ্যের ওপর সর্বোচ্চ ২৫ শতাংশ অতিরিক্ত শুল্ক আরোপ করে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পদক্ষেপের জবাব দিয়েছে চীন।

চলতি মাসের প্রথমদিকে বিদেশ থেকে আমদানি করা স্টিল ও অ্যালুমিনিয়ামের ওপর শুল্কের হার বাড়িয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

বিবিসি জানিয়েছে, শুকরের মাংস ও ওয়াইনসহ যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমদানি করা ১২৮টি পণ্যের ওপর শুল্ক আরোপ করেছে চীন।

সোমবার থেকে কার্যকর হওয়া এই শুল্ক প্রায় তিনশত কোটি ডলারের আমদানির ওপর প্রভাব ফেলবে।

বেইজিং জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র নতুন শুল্ক আরোপ করায় যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সে কারণে ‘চীনের স্বার্থের সুরক্ষা ও ভারসাম্যের’ জন্য এ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

এর আগে চীন জানিয়েছিল, তারা বাণিজ্য যুদ্ধ চায় না, কিন্তু তাদের অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হলে তারাও বসে থাকবে না।

অপরদিকে ট্রাম্প বাণিজ্য যুদ্ধকে ‘ভাল’ অভিহিত করে এতে যুক্তরাষ্ট্রের ‘সহজ’ জয় হবে বলে দাবি করেছেন।

ওয়াশিংটন থেকে বিবিসির প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মার্কিন কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যে আমদানি করা আরো হাজার হাজার কোটি ডলারের চীনা পণ্যের ওপর শুল্ক বসানোর পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে।

চীনের অন্যায্য বাণিজ্য প্রথার জন্য মার্কিন কোম্পানগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, সে কারণেই এসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে দাবি মার্কিন কর্তৃপক্ষের।

কিন্তু মার্কিন এ পদক্ষেপের প্রভাবে আরো পাল্টা পদক্ষেপ আসার সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পেয়েছে এবং এভাবে পাল্টাপাল্টি পদক্ষেপ বাণিজ্য যুদ্ধে পরিণত হতে পারে বলে মন্তব্য বিবিসি প্রতিনিধিদের।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য