প্রেমে পড়া ও পছন্দ করার বয়সের কোনো সীমারেখা নেই। একইভাবে প্রেমে পড়ার অনুভূতিও কিন্তু সম্পূর্ণ আলাদা।অনেকে আবার সময়মত বুঝতেই পারেন না, প্রিয়জনের জন্য এই অনুভূতিটি কি আসলে প্রেম নাকি সাময়িক আকর্ষণমাত্র?

প্রেমে পড়ার ফলে মানুষের শরীরে কিছু সাময়িক পরিবর্তন দেখা দেয় বলে গবেষণায় প্রমাণ করেছেন মার্কিন বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়। চলুন তাহলে দেখে নেই নিচের পরিবর্তনের কোনগুলো ঘটেছে আপনার মধ্যে।

প্রিয়জনের দিকে একটানা তাকিয়ে থাকা

কখনও কি ধরা পড়েছেন প্রিয়জনের দিকে একটানা চাহনির সময়? গবেষণায় দেখা গেছে, প্রিয়জনের দিকে একটানা তাকিয়ে থাকা কিংবা সহজেই তাকে চোখের আড়াল না করতে চাওয়াই প্রেমে পরা। যে যুগল চোখে চোখ রেখে কথা বলতে স্বাছন্দ্যবোধ করে তারা অধিকতর সুখী।

মানসিক উত্তেজনা কয়েকশ গুণ বৃদ্ধি

গবেষণায় দেখা গেছে, প্রেমে পড়লে একজন ব্যক্তির মস্তিষ্ক যে পরিমাণ উত্তেজিত থাকে ঠিক তার সমপরিমান উত্তেজনা থাকে মাদকদ্রব্য কোকেইন সেবনের পর।

সর্বদা প্রিয়জনকে স্মরণ রাখা

আপনি যদি কাউকে সত্যিই পছন্দ করে থাকেন তবে তার চিন্তামুক্ত হওয়া আপনার জন্য প্রায় অসম্ভব।

প্রিয়জনকে সুখে রাখার ইচ্ছা

ভালোবাসা মানেই সমান অংশীদারিত্ব। তবে প্রেমের শুরুর দিকে প্রিয়জনের পছন্দই আপনার কাছে সবার উপরে স্থান পাবে। গবেষণায় প্রমাণ হয়েছে, প্রিয়জনকে সুখী করতে আপনি সর্বাত্মক চেষ্টা চালাতেও রাজি।

স্ট্রেসের মাত্রা বৃদ্ধি

প্রেমে পড়া মানেই ইতিবাচক অনুভূতির হাতছানি পাবেন তা কিন্তু নয়। গবেষণায় দেখা গেছে, প্রেমে পড়লে মানুষের স্ট্রেসের পরিমাণ অনেক বেড়ে যায়। এতে সামান্য পরিমাণ ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে নারাজ।

অনুভূতিহীন বেদনা

কারো জন্য প্রেমে পড়ার পর ব্যাথার অনুভূতি তুলনামূলক কম হয়। খেয়াল করে দেখুন, আগে সামান্য আঘাতে যে পরিমাণ ব্যাথা পেতেন এখন কি তেমন ব্যাথা পান? মার্কিন স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিকেল এর এক গবেষণায় প্রিয়জনের ছবি দেখানোর পর পরীক্ষায় উপস্থিত ব্যক্তিদের ব্যাথার মাত্রা ৪০ শতাংশ থেকে কমে ১৫ শতাংশ হয়ে যায়।

নতুনত্বের চেষ্টা

সম্পর্কের শুরুর দিকে নতুন কিছু করার মাধ্যমে প্রিয়জনের মন জয় করতে সবাই চান। ভেবে দেখুন তো কাছের প্রিয় কোন বিশেষ মানুষকে ঘিরে নতুন কিছুর চেষ্টা করছেন কিনা? যদি তাই সত্য হয়, তবে ইতোমধ্যেই আপনি প্রেমে পড়ে গেছেন।

হৃদয় স্পন্দন বেড়ে যাওয়া

প্রিয়জনের সান্নিধ্যে থাকলেই যে হৃদয় স্পন্দন বৃদ্ধি পায় এমন কিন্তু নয়। অনেক সময় তার কথা চিন্তা করলেই অনেক সময় হৃদস্পন্দন মাত্রাতিরিক্ত হারে বেড়ে যায়। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার এক গবেষণায় দেখা যায়, যুগলদের হৃদয় প্রেমে পড়ার পর একই হারে স্পন্দিত হয়।

প্রচুর ঘাম হওয়া

অনেকই আছেন একটু বেশিই ঘামেন। পেটে পরজীবীর পরিমাণ বেড়ে গেলে অথবা কারো প্রেমে পড়লে মানুষের ঘামার পরিমাণ বেড়ে যায়। গবেষণায় দেখা যায়, প্রেমে পড়লে ব্যক্তির মধ্যে এক শারীরিক অস্বস্তি কাজ করে। এতে প্রচুর পরিমাণে ঘাম নিঃসৃত হয়। হয়তো নির্দিষ্ট সময় পর প্রিয়জনের সঙ্গে সবকিছু মানিয়ে নেবেন। তখনই অস্বস্তির কিছু আর থাকবে না।

তার কৌতুকে হাসতে ভালোবাসেন

আপনি কাউকে জানতে গেলে অবশ্যই প্রথমে তার কিছু বিশেষ বিষয় বেছে নিবেন। এই বিষয়গুলো তাদেরকে অনন্য করে তুলবে। তবে প্রিয়জনের ক্ষেত্রে আমরা কিছু ভিন্ন আকর্ষণীয় বিষয়বস্তু মনে রাখি যা তাদের অধিক প্রিয় করে তোলে। এক গবেষণায় দেখা যায়, সামান্য কৌতুক কিংবা ছোট কোনো বিষয় বলার মাধ্যমেই এক জনের প্রতি গভীরত্ব বেড়ে যায়। প্রথম দেখায় হয়তো আপনি তাকে অপছন্দ করতে পারেন। এটা স্বাভাবিক। তবে অনেকসময় দেখা যায় দ্বিতীয় সাক্ষাতে পূর্বের তুলনায় অধিকতর প্রিয় হয়ে উঠেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য