সিরাজুল ইসলাম বিজয়ঃতারাগঞ্জ(রংপুর)প্রতিনিধিঃ রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় এক শিশু শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা করেছে দুই সন্তানের জনক দুলাল রায়।

জনাগেছে গত মঙ্গলবার উপজেলার ২নং কুর্শা ইউনিয়নের পশ্চিম পলাশবাড়ি মধ্যপাড়া গ্রামে অজিত রায়ের ৬ বছরের শিশুকে পার্শবর্তী দুলাল রায়ের বাড়ির সামনে খেলা করছিল ।

খেলার এক পর্যায়ে শিশুটিকে ফুসলিয়ে টিভি দেখা ও খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে দুলাল রায় মেয়েটির জামাকাপড় খুলে স্পর্শকাতর স্থানে হাত বুলিয়ে ধর্ষনের চেষ্টা করে।

এতে শিশুটি কান্নাকাটি শুরু করে। সরেজমিনে আজ (শুক্রবার) সকাল ১০.০০ টায় অজিতের বাড়িতে গেলে কেউ না থাকায় পরিবারের কারসাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

অজিতের বাড়ির পার্শবর্তী কয়েকজন লোকের সাথে কথা হলে তারা বলেন-লম্পট দুলাল মেয়েটিকে ধর্ষনের চেষ্টা করে। এতে মেয়েটি কান্নাকাটি শুরু করে।

পরে দুলাল দুই টাকার নতুন নোট হাতে ধরিয়ে দিয়ে বলেন, তোর মাকে এসব কথা বলিস না।

শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে গেলে তার মা কি হয়েছে বলে জিজ্ঞেস করলে সে বলে-“মা দুলাল দাদা মোক জোর করি কি কি করছে। মোক খুব খারাপ নাগোছে। ”

পরে তার মা বিষয়টি সবাইকে জানালে দুলালের বাড়িতে এসে দেখে দুলাল পালিয়ে গেছে। পরে শিশুটির বাবা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

ভুক্তভোগি শিশুটি পশ্চিম পলাশ বাড়ি ব্রহ্ম মন্দিরের মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণ শিক্ষা কার্যক্রমের প্রাক-প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থী। এ বিষয়ে ব্রহ্ম মন্দিরের সভাপতি শ্রী রঞ্জন রায়ের সাথে কথা হলে তিনি বলেন -এর উপযুক্ত বিচার চাই।

কারণ এটা সে চরম অন্যায় করেছে। ধর্ষনের চেষ্টা কারী দুলাল রায় একই গ্রামের পূর্ণচন্দ্র রায়ের ছেলে। আজ সকালে শিশুটির বাবা অজিত রায় বাদি হয়ে তারাগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২৪,নারি শিশু নির্যাতনের ৯ এর ৪ এর (খ)।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য