ব্রাজিলের নারী ক্রীড়া সাংবাদিকরা কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে সরব হওয়ার জন্য সম্মিলিত আহ্বান জানিয়েছেন। এজন্য তারা একটি প্রচার আন্দোলনও শুরু করেছেন।

‘লেট হার ওয়ার্ক’ স্লোগানে শুরু হওয়া আন্দোলনটি দেশটির সামাজিকমাধ্যমে বেশ সাড়া ফেলেছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র এক প্রতিবেদনে এখবর জানা গেছে।

খবরে বলা হয়েছে, যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করা ৫২জন সাংবাদিক জানিয়েছেন তাদেরকে অনলাইনে হয়রানিমূলক বার্তা ও ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছে।

আন্দোলনে সমর্থন আদায়ের একটি প্রচারণামূলক ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে সামাজিকমাধ্যমে। এতে দেখা যায়, এক নারী প্রতিবেদক যখন সংবাদ তুলে ধরার চেষ্টা করছেন তখন এক পুরুষ তার মুখ চেপে ধরে হয়রানির চেষ্টা করছে।

ভিডিওটিতে আন্দোলনকারী কয়েকজনের বক্তব্য তুলে ধরা হয়েছে। একজন বলেন, ‘আমরা শুধু শান্তিতে কাজ করতে চাই’। আরেক নারী বলেন, ‘আমরা শ্রদ্ধা চাই’।

সোমবার রিও ডি জেনিরোতে ৭৯ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন মারাকানা স্টেডিয়ামে ফুটবল খেলা চলাকালে ভিডিওটি দেখানো হয়। এখান থেকেই প্রচারণা শুরু হয়।

ইএসপিএনডব্লিউ স্পোর্টস নেটওয়ার্কের বিবিয়ানা বলসন জানান, ‘আন্দোলনে বড় ধরনের সমর্থন পাওয়া যাচ্ছে। সামাজিকমাধ্যমে হ্যাশট্যাগ ও ভিডিওটি ব্যাপক হারে শেয়ার হচ্ছে।’

ফুটবলার জিকো ও জিলবার্টো সিলবা, বাস্কেটবল তারকা হার্টেনসিয়া মারকারি আন্দোলনের সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন। অনেকগুলো ফুটবল ক্লাব, ব্রাজিলের জুডো কনফেডারেশন ও জাতীয় বাস্কেটবল লিগও সমর্থন করছে নারী সাংবাদিকদের।

বিবিয়ানা জানান, সচেতনা তৈরির পরবর্তী পদক্ষেপ হবে যৌন হয়রানিতে করণীয় নির্ধারণ এবং খেলার মাঠসহ কর্মক্ষেত্রের সংস্কৃতি পরিবর্তন করা।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য