দিনাজপুরঃ সারা দেশের ন্যায় দিনাজপুরেও মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৮ পালিত হয়েছে। বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় জেলাবাসি স্মরন করেছে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের।

২৬ মার্চ উপলক্ষে সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচী গ্রহণ করে। এসব কর্মসুচীর মধ্যে ছিল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ, আলোচনা সভা, রক্তদান কর্মসূচী, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, মসজিদে মসজিদে বিশেষ মুনাজাত ও অন্যান্য উপসনালয়ে প্রার্থনা, হাসপাতাল-কারাগার, ভবঘরে কেন্দ্রসমূহে ও শিশু সদনে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন ইত্যাদি।

২৬ মার্চ সোমবার দিবসের শুরুতে সকাল ৬টায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থিত শহীদ স্মতিস্তম্ভে পুস্পাঞ্জলি অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি। এর পর জেলা প্রশাসক ড. আ ন ম আব্দুছ ছবুর ও পুলিশ সুপার মো. হামিদুল আলম।

এর পর জেলা আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. আজিজুল ইমাম চৌধুরী, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দ, এর পর শদ্ধা নিবেদন করেন দিনাজপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম ও পৌরসভা কাউন্সিলরবৃন্দ, জেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, দিনাজপুর প্রেসক্লাব, দিনাজপুর সাংবাদিক ইউনিয়ন, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, মহিলালীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী। এ ছাড়া চেহেলগাজী মাজারে বিভিন্ন সংগঠন পুস্পাঞ্জলি অর্পনের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি শদ্ধা নিবেদন করেন।

দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গোর-এ-শহীদ বড়মাঠে বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। কুচকাওয়াজে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা বিভিন্ন শারিরীক কসরত প্রদর্শন করে। জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ অন্যান্য সধীবৃন্দ কুচকাওয়াজ উপভোগ করেন।

ফুলবাড়ীঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে আজ সোমবার মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বেলা ১২টায় ফুলবাড়ী সরকারী কলেজ মাঠে, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান করেছেন উপজেলা প্রশাসন।

সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরীর সভাপতিতে,¡ প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ফুলবাড়ী সার্কেল) রফিকুল ইসলাম।

বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হায়দার আলী শাহ, সাধারন সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুল।

এতে অনান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এটিএম হামিম আশরাফ, সমাজ সেবা কর্মকর্তা আখতারুজ্জামান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মকছেদ আলী শাহ, সাবেক ডিপুটি কমান্ডার এছার উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান মানিক রতন প্রমুখ।

বিরলঃ সোমবার সকালে বিরল পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি’র বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম রওশন কবিরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিরল পৌর সভার মেয়র আলহাজ্ব সবুজার সিদ্দিক সাগর, উপজেলা চেয়ারম্যান আনম বজলুর রশীদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) এম আব্দুল লতিফ, সাধারণ সম্পাদক একেএম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মজিদ প্রমুখ।

কাহারোলঃ ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০১৮ উপলক্ষ্যে দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলা প্রশাসন বিভিন্ন কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করেন।

কর্মসূচীর মধ্যে ছিল ২৬ মার্চ’১৮ সকাল ৬ টা ৬ মিনিটে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের শুভ সূচনা এবং স্মৃতি সৌধে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুস্পস্তবক অর্পন করেন দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, উপজেলা প্রশাসন এবং উপজেলা শাখা আ’লীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কাহারোল প্রেস সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহ পৃথক পৃথক ভাবে পুস্পস্তবক অর্পন করেন। সকালে সারাদেশের ন্যায় একই সঙ্গে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনার মাধ্যমে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয় এবং এরপর প্যারেড, কুচকাওয়াজ প্রদর্শন, ক্রীড়া সূচী মোতাবেক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, সকাল সাড়ে ১১ টায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা উপজেলা পরিষদ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা প্রধান অতিথি ছিলেন দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জনশীল গোপাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ চৌধুরী। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ ডা. মোঃ আরোজ উল্লাহ, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ শামীম, থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ আইয়ুব আলী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আব্দুস সালাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রভাস চন্দ্র রায় প্রমুখ। সন্ধ্যায় দিবসটি উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিরামপুরঃ দিনাজপুরের বিরামপুরে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়। এ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, স্থানীয় ক্লাব-সংগঠনের সদস্যবৃন্দ, পুলিশ ও আনসার ভিডিপি সদস্যরা কুচ-কাওয়াজে অংশগ্রহন করেন। এসময় স্থানীয় আনসার মাঠে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

এতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ তৌহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব পারভেজ কবীর, পৌর মেয়র আলহাজ্ব লিয়াকত আলী সরকার টুটুল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান ম-ল, সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আলম রাজু, থানার ওসি আব্দুস সবুর, উপজেলা ন্যাপ সভাপতি আব্দুল আজিজ সরকার, মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেন, প্রেসক্লাবের সভাপতি আকরাম হোসেন। অনুষ্ঠান শেষে প্রায় শতাধিক মুক্তিযোদ্ধাকে ১শত টাকার প্রাইজবন্ড বিতরণ করা হয়।

এছাড়াও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের অপর অংশ আলাদা ভাবে আলোচনা সভা করেছে। এতে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লুৎফর রহমান শাহ’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা আবু বকর সিদ্দিক, মোস্তাক আহমেদ, আঃ রাজ্জাক চৌধুরী, মোসলেম উদ্দিন, মিজানুর রহমান, আব্বাস আলী, এমদাদুল হক প্রমূখ।

এ সভায় বক্তারা বলেন, গত ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লুৎফর রহমান শাহ’র বক্তব্যকে কেন্দ্র করে অপর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা কর্তৃক লুৎফর রহমান শাহ’র বিরুদ্ধে আদালতে দু’টি মামলা করার প্রতিবাদে তাঁরা উপজেলা প্রশাসনের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগদান করেনি।

চিরিরবন্দরঃ চিরিরবন্দরে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন পূর্বক বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পার্ঘ অর্পণসহ শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ প্রদান করে ৪৮তম মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে।
সোমবার সকাল ৮ টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে চিরিরবন্দর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে কুজকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এম পি।

কুজকাওয়াজের সালাম ও অভিবাদন গ্রহন করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এম পি , উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ গোলাম রব্বানী ও চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারেসুল ইসলাম।

কুজকাওয়াজ ও ডিসপ্লে অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি ৪ তলা বিশিষ্ট নব-নির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স উদ্বোধন করে ঐ কমপ্লেক্স অডিটরিয়ামে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা সভায় ও উপজেলা কৃষি বিভাগের আয়োজনে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামুল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আয়ুবর রহমান শাহ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ গোলাম রব্বানী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তরুবালা রায়, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ মনজুরুল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আজিমদ্দিন গোলাপ, প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে উপজেলার সকল সরকারী কর্মকর্তা ও মুক্তিযোদ্ধাগণ ছাড়াও আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নবাবগঞ্জঃ ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদায় আনন্দ ঘন পরিবেশে উদযাপিত হয়েছে। সকাল ৮ টায় স্থানীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক নবাবগঞ্জ পাইলট হাই স্কুল মাঠে আনুষ্ঠানিক ভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। দুপুরে স্কুল মাঠের স্বাধীনতা মঞ্চে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে মুক্তি যোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান উপজেলা নির্বাহী অফিসার মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন, ইউনুস আলী তালুকদার, দবিরুল ইসলাম, এখলাছুর রহমান, নবাবগঞ্জ থানার ওসি সুব্রত কুমার সরকার, থানা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ডাঃ মোশারফ হোসেন ও আমির হোসেন। অনুষ্ঠান শেষে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরন করা হয়।

বীরগঞ্জঃ বীরগঞ্জে ব্যাপক কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৮। ২৬ মার্চ এ কর্মসূচীর মধ্যে ছিল জাতীয় পতাকা উত্তোলন, পুস্পস্তবক অর্পন, কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে, প্রীতি ফুটবল,বীরমুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, হাসপাতাল ও এতিমখানায় উন্নতমানের খাবার পরিবেশন, মোনাজাত/প্রার্থনা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

দুপুরে বীরগঞ্জ পাইলট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বীরমুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দিনজাপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জনশীল গোপাল এম পি।

উপজেলা নির্বাহি অফিসার মো. তোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার অধ্যাপক কালীপদ রায়, বীরগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা মোহাম্মদ আক্কাস আহম্মেদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মো. নুর ইসলাম নুর, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. মোশারফ হোসেন বাবুল প্রমূখ।

হাবিপ্রবিঃ যথাযোগ্য মর্যাদা ও দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্যদিয়ে সোমবার হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৮ উদযাপিত হয়েছে।

সকাল ৮ টায় পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সম্মুখে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও সমবেত কন্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। পরে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেমের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, ও ছাত্র-ছাত্রীেেদর নিয়ে স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে।

সকাল সাড়ে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। ক্রমান্বয়ে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার নেতৃবৃন্দ, কর্মচারি ও হাবিপ্রবি স্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ভাইস-চ্যান্সেলর ২৬ মার্চের বাণী পাঠ ও বিতরণ করা হয়। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৮ উপলক্ষে ভাইস-চ্যান্সেলর একটি দেয়ালিকা উন্মোচন এবং শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-১ এ দিবসের তাৎপর্যের উপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা শাখার পরিচালক প্রফেসর ড. মো. তারিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম ও মূখ্য আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আবদুর রশীদ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার রাসেল আলভী ও শিক্ষার্থীদের পক্ষে সাদিয়া ইসলাম প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের সহকারী পরিচালক ড. মো. রাশেদুল ইসলাম।

আলোচনা শেষে প্রীতি ভলিবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। মিউজিক্যাল চেয়ার। শিশুদের জন্য বিস্কুট দৌড় এবং সকলের জন্য যেমন খুশি তেমন সাজো প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

খেলাধুলা শেষে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। বাদ যোহর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মুনাজাত করা হয়। সব শেষে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য