দিনাজপুর সংবাদাতাঃ গতকাল শুক্রবার বিকাল ৩ টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাব অডিটরিয়ামে জাগপা দিনাজপুর জেলা আয়োজিত ঐতিহাসিক ২৩ মার্চ পরাধীন বাংলার দিনাজপুরে স্বাধীনতার প্রথম পতাকা উত্তোলক জাগপা’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মজলুম জননেতা শফিউল আলম প্রধানের স্মরণে ও পতাকা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাগপার সভাপতি অধ্যাপিকা রেহানা প্রধান শফিউল আলম প্রধানের স্মৃতিচারণ করে বলেন, দিনাজপুরের ইতিহাস ও শফিউল আলম প্রধানের ইতিহাস এক অভিন্ন ইতিহাস।

স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে দিনাজপুরের গণমানুষের দুর্দিনের কা-ারী শফিউল আলম প্রধানের ইতিহাস পরাধীনতা ভেঙে স্বাধীনতার ইতিহাস। তিনি আজীবন কৃষক-শ্রমিক, মুসলিম-হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ও মজলুম মেহনতি মানুষের জন্য সংগ্রাম করে গেছেন। এসময় তিনি জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, জাগপার রাজনীতি কারো গোলামী করার জন্য নয়। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য। সুতরাং জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস।

তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, উন্নয়নের সাফাই গেয়ে দেশকে দুর্ভিক্ষের দিকে ঠেলে দিবেন না। কৃষি নির্ভর বাংলাদেশে আজ ৭০ টাকা চালের কেজি। চারদিকে ক্ষুধার আর্তনাদ। দেশের প্রায় ২ কোটি পরিবার দৈনিক আধা কেজি চাল কিনে সংসার চালায়। আপনি জানেন এবং বোঝেন প্রশাসনের চেয়ারে চেয়ারে দুর্নীতির উন্নয়ন চলছে। দেশের উন্নয়ন কোথায় ? দেশবাসীর জিজ্ঞাসা উন্নয়নের অগ্রযাত্রা ও আনন্দ শোভাযাত্রা করে একদিনে দেশের হাজার কোটি টাকার ক্ষতি কে দেবে ?

তিনি বলেন, আফসোস স্বাধীনতার মাসে ভারতের দাদা বাবু, কাকা বাবুরা যখন বলেন ‘পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশকে আলাদা করা ভারতের ভুল ছিল’ জনগণ জানতে চায় দিল্লীর এমন মন্তব্যের নিন্দা না জানিয়ে আওয়ামী লীগ নেতারা উল্টো দিল্লীকে সময়ের শ্রেষ্ঠ বন্ধু বলে কি বোঝাতে চেয়েছেন ? সুতরাং আওয়ামী লীগের হাতে দেশ, স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও মানচিত্র কোনটাই নিরাপদ নয়।

তিনি আরো বলেন, ইতিহাস বিকৃতিতে শ্রেষ্ঠ আওয়ামী লীগ এখন নাম বদলের নগ্ন খেলায় মেতেছে। শহীদ জিয়ার নাম-নিশানা মুছে দিয়ে একদলীয় বাকশাল কায়েমের ষড়যন্ত্র চিরস্থায়ী করার অপচেষ্টা চলছে। তিনি সরকারকে হুশিয়ার করে দিয়ে বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেবেন না ? মনে রাখবেন জোয়ার-ভাটার এদেশে গণঅভ্যুত্থানের মাধ্যমে জুলুমবাজ শাসকের নিকৃষ্ট পতন ইতিহাসের জীবন্ত স্বাক্ষী হয়ে থাকবে।

জাগপার দিনাজপুর জেলা সভাপতি রকিব উদ্দিন চৌধুরী মুন্নার সভাপতিত্বে ও নুরুজ্জামান হোসেন নুর এর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন জাগপার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা খন্দকার লুৎফর রহমান, সহ সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান, খন্দকার আবিদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ জামাল উদ্দিন, বেলায়েত হোসেন মোড়ল, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান খোকন, সাবেক সংসদ সদস্য রেজিনা ইসলাম, ন্যাপের জেলা সভাপতি মঞ্জুরুল আলম, জাগপা নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা আনসার আলী, মফিদুল ইসলাম মফি, আক্তারুজ্জামান ছেন্ডু, আব্দুর রহমান, মাসুদ রানা, ফরিদ উদ্দিন, যুব জাগপার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আরিফুল হক তুহিন, জাগপা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান ফারুকী, মহানগর সভাপতি ফয়সাল অরণ্য,সাধারন সম্পাদক মীর আমির হোসেন আমু, ইমরুল কায়েস রুপম, রফিক আহমেদ, আবেদ হোসেন চুন্নু, জাগপা ছাত্রলীগ নেতা আল আমিন, রশিদুল ইসলাম, রুবেল ইসলাম প্রমুখ।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য