দিনাজপুর সদরঃ নিম্ন আয়ের দেশ হতে “নিম্নমধ্য আয়ের দেশে” বাংলাদেশের উত্তরণ উদযাপন উপলক্ষে দিনাজপুর জেলা প্রশাসন ও জেলা তথ্য অফিসের আয়োজনে বিশাল আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২২ মার্চ) সকাল ১০টায় দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় ময়দান হতে এক বিশাল আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণস্থ মুক্তিযোদ্ধা স্মতিস্তম্ভে গিয়ে শেষ হয়। আনন্দ শোভাযাত্রায় দিনাজপুর জেলা প্রশাসক ড. আ ন ম আব্দুছ ছবুর, পুলিশ সুপার মো. হামিদুল আলম, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাসুদ রানা, দিনাজপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. ফরিদুল ইসলাম, দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. মওলা বকস চৌধুরী, দিনাজপুর জেনারেল হাসপাতালে তত্বাবধায়ক ডা. আহাদ আলী, দিনাজপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সভাপতি আলহাজ্ব রেজা হুমায়ূন ফারুক চৌধুরী শামিম, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. আনোয়রুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ ঘোষ কাঞ্চন, দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, দিনাজপুর পৌরসভা, দিনাজপুর জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, জেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর, জেলা স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, দিনাজপুর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, সিভিল সার্জন অফিস, বিএডিসি অফিসসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, দিনাজপুর জিলা স্কুল, সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, দিনাজপুর মিউনিসিপ্যাল হাই স্কুল (বাংলা স্কুল), দিনাজপুর সরকারী কলেজ, সরকারী মহিলা কলেজ, আদর্শ কলেজ, কেবিএম কলেজসহ শহরের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, ব্র্যাক, আরআরএস, ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশসহ বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন। আনন্দ শোভাযাত্রা শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণে অবস্থিত মুক্তিযোদ্ধা স্মতিস্তম্ভের সামনে “এলডিসি ক্যাটাগরি হতে বাংলাদেশের উত্তরণঃ ভবিষ্যৎ সম্ভাবনা” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিরলঃ দিনাজপুরের বিরলে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে, ‘নি¤œ আয়ের দেশ’ থেকে বাংলাদেশের ‘নি¤œমধ্য আয়ের দেশে’ উত্তরণ ২০-২৫ মার্চ ২০১৮ প্রচারাভিযান ও সেবা সপ্তাহ উদযাপন উপলক্ষে আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম রওশন কবীরের নেতৃত্বে শোভাযাত্রাটি উপজেলা চত্বর থেকে বের হয়ে বিরল পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে এবং পুণরায় একই জায়গায় এসে শেষ হয়। এসময় এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বোচাগঞ্জঃ বাংলাদেশ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে নিম্ন মধ্য আয়ের দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের স্বীকৃতির উদযাপন উপলক্ষ্যে স্থানীয় সরকার, পল¬ী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের অধিনস্ত সকল দপ্তরের পক্ষ থেকে আজ বৃহস্পতিবার দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বিশাল আনন্দ র‌্যালী করা হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা ক্যাম্পাস হতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সারওয়ার মোর্শেদের নেতৃত্বে সেতাবগঞ্জ চিনিকল লিঃ সহ বোচাগঞ্জ উপজেলার সকল সরকারী বে-সরকারী প্রতিষ্ঠানের অংশ গ্রহনে একটি বিশাল বর্ণাঢ্য র‌্যালী সেতাবগঞ্জ পৌর শহর প্রদক্ষিন করেছে।

বীরগঞ্জঃ বীরগঞ্জে স্বল্প আয় থেকে নি¤œ মধ্য আয়ের উন্নয়ন শীল বাংলাদেশ পদার্পন উপলক্ষে আনন্দ শোভাযাত্রা-আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ২২ মার্চ সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে একটি আনন্দ বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়ে ঢাকা-পঞ্চগড় মহাসড়কের সরকারী ডিগ্রী কলেজ ও মুক্তিযোদ্ধ স্মৃতি স্থম্ভ (পুরাতন শহীদ মিনার) হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে ইউএনও অফিস চত্বরে সমাপ্ত হয়।আনন্দ বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফাজ্জল হেসেনের সভাপতিত্বে স্বল্প আয় থেকে নি¤œ মধ্য আয়ের উন্নয়ন শীল দেশে পদার্পন বিষয়ে বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম, বীরগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ সালা উদ্দিন আহাম্মদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাকারিয়া জাকা, ওসি আবু আক্কাছ আহ্মদ ও অন্যরা।আনন্দ বর্নাঢ্য শোভাযাত্রায় স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসার ঞাজার হাজার ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সহযোগি সংগঠন, সামাজিক-সাস্কৃতিক ও সাংবাদিক প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ ও সাধারন জনগন অংশ গ্রহন করে। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

কাহারোলঃ ‘নিম্ন আয়ের’ দেশ থেকে ‘নি¤œমধ্য আয়ের’ দেশে বাংলাদেশের উত্তরণ উদযাপনের লক্ষ্যে ২২ মার্চ’১৮ রোজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত। আনন্দ শোভাযাত্রাটি উপজেলা চত্বর থেকে বের হয়ে উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা স্মৃতি সৌধে গিয়ে শেষ হয়। আনন্দ শোভাযাত্রায় উপজেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারীবৃন্দ অংশ গ্রহণ করেন। আনন্দ শোভাযাত্রাটি নেতৃত্ব দেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশীদ চৌধুরী ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদ।

ঘোড়াঘাটঃ স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপন করা হয়।দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে বৃহস্পতিবার এ উপলক্ষে ঘোড়াঘাট উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার টি.এম.এ. মমিন এবং উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ আব্দুর রাফে খন্দকার সাহানশার নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী,রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, আইনশৃংখলা বাহিনী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী,ডাক্তার,সাংবাদিক,কৃষক,সুশীলসমাজ সহ সর্বস্তরের জনগন শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স উপজেলা নির্বাহী অফিসার টি.এম.এ.মমিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ রাফে খন্দকার সাহানশা।বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, উপজেলা স্বাস্হ্য ও প.প.কর্মকর্তা ডাঃ মোঃনুরনেওয়াজ, থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃআমিরুল ইসলাম,পৌর মেয়র মোঃ আব্দুল ছাত্তার মিলন,সিংড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মান্নান মন্ডল,উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম,পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্নআহবায়ক মোঃআসাদুজ্জামান প্রমুখ। ঘোড়াঘাট উপজেলার স্কুল,কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে।সদ্য ঘোষিত জাতীয় করণ রানীগঞ্জ ২য় দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্যের জন্য প্রধান মন্ত্রী কে অভিনন্দন জানিয়ে বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে।রানীগঞ্জ ২য় দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের সভাপতি রাফে খন্দকার সাহানশার সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।এতে বক্তব্য রাখেন,ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ,এ আর এস ওয়াছেকুর রহমান,সহকারী প্রধান শিক্ষক মহিউদ্দিন,সহকারী শিক্ষক মনোরঞ্জন মোহন্ত, জয়নাল আবেদীন,আশাপূর্ণ ব্যানাজি,বকুল সরকার,উৎপল সরকার,আলিমুররাজি খন্দকার,মন্জুরকাদির,মাসুদুর রহমান।

ফুলবাড়ীঃ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে নিম্নমধ্যম আয়ের দেশে বাংলাদেশের উত্তরণ উদযাপনের লক্ষে। আজ বৃহস্পতিবার দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে, প্রচারাভিযান ও সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরী। প্রচারাভিযান ও সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে সকাল ১০টায় উপজেলা প্রসাশনের উদ্যোগে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী উপজেলা চত্তর থেকে বের হয়। র‌্যালীটি পৌরশহর প্রদক্ষিন করে উপজেলা চত্তরে এসে শেষ হয়। র‌্যালী শেষে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে, বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হায়দার আলী শাহ, সাধারন সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুল, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নুরুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এটিএম হামিম আশরাফ, উপজেলা প্রকৌশলী সাহিদুজ্জামান, বঙ্গবন্ধু ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মাসুদুর রহমান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সমসের আলী মন্ডল, বরেন্দ্র কর্মকর্তা আজমল হোসেন, কাজিহাল ইউপি চেয়ারম্যান মানিক রতন ও প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল আলীম প্রমুখ। র‌্যালী ও আলোচনা সভায় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও উপজেলা প্রসাশনের পদস্থ কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ উপস্তিত ছিলেন।

বিরামপুরঃ দিনাজপুর জেলার বিরামপুরে নিম্ন আয়ের দেশ থেকে নি¤œমধ্য আয়ের দেশে বাংলাদেশের উত্তরণ উদযাপনের লক্ষ্যে বিরামপুর উপজেলা হলরূমে ২২ মার্চ, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনার ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী সরকার টুটুল, সহকারি ভূমি কমিশনার এনামুল হক, উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ ইদ্রিস আলী, পবিস-২ জিএম সন্তোস কুমার সাহা অধ্যক্ষ শিশির কুমার সরকার, উপাধ্যক্ষ আদিত্য কুমার অপু, অধ্যক্ষ রেজাউল করিম সেলিম, বিরামপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আকরাম হোসেন, প্রধান শিক্ষক ভারপ্রাপ্ত আলমাস উদ্দিন মন্ডল, শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক প্রমূখ। এর আগে সকালে বালিকা বিদ্যালয় হতে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়।

হাবিপ্রবিঃ জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভলপমেন্ট পলিসি (সিডিপি) কর্তৃক বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উঠার যোগ্যতা অর্জনের স্বীকৃতি পাওয়ায় হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হতে এক আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয় ৷ দেশব্যাপী কর্মসুচির অংশ হিসেবে আজ বেলা ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম এর নেতৃত্বে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। শোভাযাত্রা শেষে এক সংক্ষিপ্ত আলেচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ৷অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে আমাদের যা অর্জন হওয়ার কথাছিল তা ২০১৮ সালের মধ্যেই অর্জিত হয়েছে। গত নয় বছর থেকে ধারাবাহিকভাবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের অভাবনীয় উন্নয়নের ফলে আমাদের এই অর্জন সম্ভব হয়েছে। আমরা মাথাপিছু আয়, অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা এবং মানবসম্পদ উন্নয়ন; এই তিনটি মানদন্ড সাফল্য অর্জন করেছি এবং উন্নয়নশীল দেশে উপনীত হয়েছি। আমাদের বিশ্বাস উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত থাকলে ২০৪১ সালের পূর্বেই আমরা উন্নত রাষ্ট্রে পরিনত হব। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ভেটেরিনারি অ্যান্ড এনিমেল সায়েন্স অনুষদের ডীন প্রফেসর ডা. মো. ফজলুল হক, হিসাব শাখার পরিচালক প্রফেসর ড. মো. শাহাদৎ হোসেন খান, চীফ মেডিকেল অফিসার ডা. মো. নজরুল ইসলাম, হাবিপ্রবি ছাত্রলীগ নেতা মোস্তফা তারেক চৌধুরী, মোর্শেদুল আলম রনি, আহকামুল আকমাম, কর্মচারীদের পক্ষে মো. পারভেজ হোসেন।উক্ত আনন্দ শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী, হাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগ ও কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন৷

দিনাজপুর সরকারি কলেজঃ স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপনের লক্ষে দিনাজপুর সরকারি কলেজের আয়োজনে আনন্দ শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২২ মার্চ বৃহস্পতিবার সকালে দিনাজপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সৈয়দ মোহাম্মদ হোসেন এর নেতৃত্বে আনন্দ শোভাযাত্রা কলেজ ক্যাম্পাস হতে বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে পুনরায় কলেজে গিয়ে শেষ হয়। পরে স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপনের লক্ষে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সৈয়দ মোহাম্মদ হোসেন। স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে বাংলাদেশের উত্তরণের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফল্য উদযাপন কমিটির আহবায়ক এনামুল হক এর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আব্দুল বাছেদ মন্ডল, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. তহিদুল ইসলাম। বক্তারা বলেন, আমরা কিছু ক্রাইটেরিয়া পূর্ণ করায়, উন্নয়নশীল দেশে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য প্রাথমিক যোগ্যতা অর্জন করেছি। আমাদেরকে আরো ছয় বছর এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবে। আলোচনা সভা শেষে কলেজের সাংস্কৃতিক এক্য জোটের শিক্ষার্থীদের আয়োজনে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। এসময় কলেজের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিথ ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কলেজের ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. মাজেদুর রহমান সরকার।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য