আরিফ উদ্দিন, গাইবান্ধা থেকেঃ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর পল্লীতে পারিবারিক কলহের জের ধরে নববধুকে ছুরিকাঘাত করে স্বামী আতœহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের আটঘড়িয়া গ্রামে। নিহত দুলাল হোসেনপুর ইউপির আটঘড়িয়া গ্রামের বাবলু মিয়ার ছেলে।

প্রত্যাক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গত ৩ মাস পূর্বে দুলাল মিয়ার সাথে একই উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের কাতুলী গ্রামের সাজা মিয়ার স্কুল পড়ুয়া কন্যা শিথিলা আকতার (১৬) সাথে বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিবাহের কয়েকদিন যেতে না যেতেই উভয় পরিবারের মাঝে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল।

এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার সন্ধ্যায় শিথিলার সাথে স্বামী দুলাল মিয়ার কলহ সৃষ্টি হয়। এসময় দুলালের হাতে থাকা একটি ছুরি দ্বারা স্ত্রী শিথিলার বুকে ডান পার্শ্বে আঘাত করে। পরে দুলাল ওই ছুরি দিয়ে তার নিজের পেট ও বুকে ঢুকিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্বামী-স্ত্রী দু’জনকেই প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়। তাদের অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য দু’জনকেই রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই দুলালের মৃত্যু হয়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত স্ত্রী শিথিলার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা যায়।

থানা অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, হোসেনপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন মন্ডল মোবাইলে আমাকে জানিয়েছে। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। এদিকে, হোসেনপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন মন্ডল টিটু ঘটনার সত্যতা স্বীকার জানান, বিবাহের পর হতে স্বামী-স্ত্রী মাঝে কলহের জেরে আজ সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য