যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যনীতি ধারাবাহিকভাবে লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছে চীন। বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চীন থেকে পণ্য আমদানির ক্ষেত্রে আরও বেশি করারোপ করতে যাচ্ছেন- এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার প্রতিক্রিয়ায় এমন অভিযোগ তুললো চীন।

মার্কিন ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবর অনুসারে, বৃহস্পতিবার চীন থেকে আমদানির ক্ষেত্রে নতুন করারোপ করবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। নতুন আরোপিত করের পরিমাণ প্রায় ৬০ বিলিয়ন ডলার হতে পারে। এর ফলে বিশ্বের বড় দুটি অর্থনীতির দেশ চীন ও যুক্তরাষ্ট্র একটি নতুন বাণিজ্য যুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

ট্রাম্পের অভিযোগ, চীন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে মেধা সম্পদ চুরি ও স্থানান্তর করছে। তিনি আরও বলেছেন, বাণিজ্য যুদ্ধ ভালো এবং সহজে জেতা যায়। বিপরীতে চীন বরাবরই জানিয়ে আসছে বাণিজ্য যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার কোনও ইচ্ছে তাদের নেই। কিন্তু যদি প্রয়োজন হয় তাহলে তারা প্রস্তুত রয়েছে।

বৃহস্পতিবার চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, ৩০১ ধারা তদন্তের প্রেক্ষিতে চীন নিজের অবস্থান একাধিকবার জানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের এমন রক্ষণশীল নীতি বিরোধিতা আমরা করেছি।

এতে আরও বলা হয়, যদি আমাদের আইনি অধিকার ও স্বার্থ হুমকির মুখে পড়ে তাহলে চীন বসে থাকবে না। আমাদের অধিকার ও স্বার্থ রক্ষা আমরা প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নেব।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের করারোপের পাল্টা পদক্ষেপ নেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে চীন। তারা যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি পণ্য আমদানির ক্ষেত্রে কর বাড়াতে পারে। সূত্র: রয়টার্স।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য