দিনাজপুর (হাবিপ্রবি) সংবাদাতাঃ শিক্ষকদের প্রচলিত অধিকার পরিপন্থি অফিস আদেশ বাতিল করার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি)’র সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষকবৃন্দ।

বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে প্রায় ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন তারা। পরে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রেরন করেন। মানববন্ধন কর্মসূচীতে শতাধিক সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষকবৃন্দ অংশগ্রহন করেন।

মানববন্ধন কর্মসূচী চলাকালে এবং স্মারকলিপিতে তারা বলেন, গত ৩ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের রিজেন্ট বোর্ডের ৪২তম বিশেষ সভায় শিক্ষকদের প্রথম শ্রেনী ও উচ্চ শিক্ষার ইনক্রিমেন্ট সুবিধা বন্ধ করে দেয়ার সুপারিশ করা হয় এবং পদোন্নতি/পদন্নোয়নের ক্ষেত্রে কিছু শর্ত আরোপ করা হয়। এটি বিশ্ববিদ্যালয় ধারনার ও শিক্ষকদের সম্মানের পরিপন্থি যাতে করে শিক্ষকদের যথাসময়ে ও সমভাবে পদোন্নতি/পদন্নোয়ন ক্ষেত্রে অন্তরায় হয়ে দাড়াবে।

জাতীয় পে-স্কেল অনুযায়ী অন্যান্য সরকারী চাকুরিজীবী তুলনামূলক কম শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকা সত্বেও প্রথম শ্রেনী এবং উচ্চ শিক্ষার ইনক্রিমেন্ট সুবিধা পেয়ে আসছে সেখানে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনক্রিমেন্ট সুবিধা বাতিল সম্পূর্ণ অযৌক্তিক বলে জানান তারা। এই বিষয়ে কথা বলতে গেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার প্রফেসর ড. শফিউল আলম এবং হিসাব শাখার পরিচালক প্রফেসর ড. শাহাদৎ হোসেন খান শিক্ষকদের সাথে অশোভনীয় আচরণ করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়।

এ সময় বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক আহসান হাবীব, ফজলে রাব্বী, হাবিবা খাতুন, প্রভাষক আতিকুর রহমান, রকিবুল হাসান প্রমুখ। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবরে ১০১ জন স্বাক্ষরিত একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য