প্রাইভেট কারসহ ২২ বোতল ফেনসিডিল আটক করেছে সৈয়দপুর থানা পুলিশ। এ সময় কার মালিকসহ ৩ জনকে আটক করা হয়। ২১ মার্চ শহরের উপজেলা মোড় থেকে কার ও ফেনসিডিলসহ তাদের আটক করা হয়। এ ঘটনায় সৈয়দপুর থানায় মামলা হয়েছে।

থানার উপ-পরিদর্শক মো. আব্দুল আজিজ জানান, সোর্সের দেয়া সংবাদে তারা জানতে পারেন ঢাকা মেট্রো-ছ-১১-১৬৮৩ নাম্বারের একটি সাদা রঙের প্রাইভেট কার উপজেলা মোড়ে অবস্থান করছে। ওই কারে ফেনসিডিল রয়েছে। এমন সংবাদে থানা পুলিশের একটি দল সেখানে হাজির হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কার নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

ধাওয়া করে ওই কারে থাকা ২২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার এবং ৩জনকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো নীলফামারী শহরের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী মুশফিকুর রহমান (৪০), কর্মচারি সৈয়দপুর শহরের নতুন বাবুপাড়া এলাকার মো. মুসলিম (৩০) ও প্রাইভেট কার চালক নীলফামারীর মোরসালিন (৩৫)।

পরে উদ্ধার করা ফেনসিডিল ও কারসহ আটক তিনজনকে থানায় আনা হয়। সূত্র জানায়, সকালে ওই ব্যবসায়ী তার সন্তানকে সৈয়দপুরে স্কুলে দিয়ে ফেনসিডিল কিনতে হিলিতে যায়। সেখান থেকে ফেনসিডিল নিয়ে তার সন্তানকে নিতে সৈয়দপুরের ওই এলাকায় আসেন। আর তখনি ধরা খান পুলিশের হাতে।

সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহাজাহান পাশা ৩জনকে আটকসহ ফেনসিডিল ও প্রাইভেট কার জব্দের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য