দীর্ঘদিন প্রেম পর প্রেমিক বিয়ে না করাসহ কঠোর ভাষা প্রয়োগ করায় কুড়িগ্রামের উলিপুরে এক মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্রী তা সহ্য করতে না পেয়ে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

গতকাল সোমবার উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের মহিদেব গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

জানা গেছে, ঐ গ্রামের মোসলেম আলীর কন্যা রাজবল্লভ বালিকা দাখিল মাদ্রাসার ১০ম শ্রেণির ছাত্রী মোর্শেদা বেগম দীর্ঘ ২ বছর থেকে পাশাপাশি সাদুয়া দামারহাট গ্রামের মৃত মহুবর রহমানের পুত্র মাসুদ রানার সাথে প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। প্রেম লীলাখেলা দীর্ঘদিন থেকে চলে আসার পর গত এক মাস থেকে প্রেমিক মাসুদ রানা প্রেমিকা মোর্শেদা বেগমের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে এড়িয়ে চলতে থাকে।

ঘটনার দিন সকাল ১০টার সময় মাসুদ রানা মহিদেব কাচারী মাঠে অবস্থান করছেন এ খবর পেয়ে মোর্শেদা ছুটে যান সেখানে। এরপর তাদের দেখা সাক্ষাত হলে প্রেমিক মাসুদ রানা সাফ জানিয়ে দেন তাকে বিয়ে করবেন না। বিষয়টি নিয়ে তাদের দু-জনের মধ্যে অনেক কথা কাটাকাটি হলে মোর্শেদা নিজ বাড়িতে ফিরে এসে দুপুর সোয়া ১২টার সময় ঘরের ধর্নার সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা করেন।

এছাড়া অপর একটি সুত্র জানায় মোর্শেদা বেগম ৩ মাসের অন্তঃসত্তা, এ কথা মাসুদ রানাকে জানিয়ে বিয়ে করার চাপ দিলে সে অস্বীকার করে বসে বলে এই আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন মোর্শেদা বেগম।

এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনচার্জ এসকে আব্দুল্ল্যা আল সাইদ জানান, প্রেমঘটিত নিয়ে এ আত্মহত্যা হতে পারে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রামে মর্গে নেয়া হয়েছে, থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য