হাকিমপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরের হাকিমপুরে ৩ পরিবহন শ্রমিককে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে তাদের টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবীতে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটামসহ ৩ দিনের কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় দিনাজপুর জেলা মটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের আওতাধীন হিলি স্ট্যান্ড কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই কর্মসূচীর ঘোষনা দেয়া হয়।

হিলি বাস টার্মিনালে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক মো. আতাউর রহমান মিলন লিখিত বক্তব্যে বলেন, আগামী ১৯ মার্চ হতে ৪৮ ঘন্টার মধ্য দোষীদের গ্রেফতারের আল্টিমেটাম, ২০ মার্চ মৌন প্রতিবাদ মিছিল এবং তাতেও যদি দাবী আদায় না হয় তাহলে ২১ মার্চ হতে পরিবহন চলাচলে বিঘœ ঘটলে এর দায়-দায়িত্ব প্রশাসনকে বহন করতে হবে।

আসাদ পরিবহনের ঢাকা-হাকিমপুরের ডাঙ্গাপাড়া রুটে চলাচলকারী একটি বাসে গত ১১ মার্চ ঢাকা অভিমুখ থেকে পথিমধ্য ডাঙ্গাপাড়ার এক যাত্রী বাসটিতে উঠেন এবং তার সঙ্গে থাকা একটি লাগেজ থাকলেও তিনি সেটির টোকেন গ্রহন করেননি। এরপর বাসটি ডাঙ্গাপাড়া কাউন্টারের পূর্বের স্টপেজ হিলিতে পৌছিলে সেখানে নামা অন্য এক যাত্রীকে হৃদয় নামক এক হেলপার লাগেজটি তাকে ভুল বসত দিয়ে দেন।

এরপর অবশ্য সেই যাত্রী একই দিন লাগেজটি তাদের হিলি কাউন্টারে ফেরতও দেন। লাগেজটি ফেরত দেয়ার সেই খবরটি ডাঙ্গাপাড়া কাউন্টারে পৌছার পূর্বেই পরিবহনটির সুপার ভাইজার রাজু আহম্মেদসহ দু’হেলপার হৃদয় ও রিফাতকে হাকিমপুরের খট্টা মাধবপাড়া ইউ পি চেয়ারম্যান মো. মোকলেছার রহমানের নির্দেশে তার ইউ পি কার্যালয়ের এক গ্রাম পুলিশসহ তার পেটোয়া বাহিনীর চার সদস্য তাদেরকে ধরে এনে তাদের বিরুদ্ধে লাগেজটি চুরির অভিযোগ এনে ‘টর্চার সেল’ নামে পরিচিত ইউ পি কার্যালয়ের একটি কক্ষে তাদেরকে আটকে রেখে অমানসিক নির্যাতন চালিয়ে গুরুতর আহত করেন এবং রাজু আহম্মেদের নিকট থাকা ৩৭ হাজার ৩শ টাকা ও ১৪ হাজার টাকা মূল্যের একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে লাগেজটির মালামালের মূল্য বাবদ আরো ৪০ হাজার টাকা দাবি করেন অন্যত্থায় তাদেরকে হত্যার হুমকি দেন।

এ অভিযোগে পরদিন ১২ মার্চ রাজু আহম্মেদ বাদী হয়ে হাকিমপুর থানায় চেয়ারম্যান মো. মোকলেছার রহমানকে হুকুমের আসামী করে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য