পার্লামেন্টের ভোটে দ্বিতীয় মেয়াদে চীনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন শি জিনপিং। ভাইস প্রেসিডেন্ট হয়েছেন তার ঘনিষ্ঠ মিত্র ওয়াং কিশান ।

শিকে আজীবন ক্ষমতায় রাখতে গত ১১ মার্চ সংবিধান সংশোধন করে সর্বোচ্চ দুই মেয়াদ প্রেসিডেন্ট থাকার বিধান তুলে দেয় চীনের ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেস।

যে কারণে শনিবারের ভোটে শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিকতা ছাড়া আর কিছু ছিল না। বরং ভাইস প্রেসিডেন্ট কে হচ্ছেন সেটা নিয়েই আগ্রহ ছিল সবার। দুর্নীতির বিরুদ্ধে শির লড়াইয়ে ওয়াং সামনের সারিতে ছিলেন।

বেইজিংয়ের ‘গ্রেট হল অব দ্য পিপলস’ এ শনিবার সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে ভোট হয়।

এদিন মোট ২,৯৭০ ভোটের সবগুলোই শির পক্ষে পড়েছে। ওয়াং একটি ভোট কম পেয়েছেন।

২০১৩ সালে ২, ৯৫২ ভোট পেয়ে প্রথমবার চীনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন শি।

দলের নিয়ম অনুযায়ী ৬৯ বছরের ওয়াং গত অক্টোবরে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির ‘রুলিং কাউন্সিল’ থেকে অবসর নেন।

কিন্তু অবসরে গেলেও দলে তার প্রভাব বিন্দু মাত্র কমেনি।

কিংস কলেজ লন্ডনের দ্য লাও চীন ইন্সটিটিউটের পরিচালক কেরি ব্রাউন বলেন, ওয়াং যে সত্যিই খুব গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক উপদেষ্টা সেটা তাকে ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করা দেখেই বোঝা যাচ্ছে।

“তিনি খুবই দক্ষ রাজনীতিবীদ। যে কারণে স্বাভাবিকভাবেই তিনি ক্ষমতার কেন্দ্রে থাকবেন। তবে এটাও ঠিক যে, এর মাধ্যমে আমরা চীনের রাজনীতিতে প্রথাবিরুদ্ধ সময়ের সূচনা দেখতে পাচ্ছি।”

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য