সিরিয়ার আফরিনে তুর্কি বাহিনীর বিমান অন্তত আটজন নিহত হয়েছেন। আফরিনের নুবিল ও জাহরা গ্রামে এই হামরা চালানো হয়। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকার এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এখনও অনেক বেসামরিক আটকা পড়ে আছে আফরিনে। শহরটি ঘিরে রেখেছে তুরস্কের সেনাবাহিনী। তাদের সঙ্গে রয়েছে ফ্রি সিরিয়ান আর্মি।

তবে হামলার ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করেনি তুরস্ক বা সিরীয় সরকার।

গত ২০ জানুয়ারি আফরিনে ‘অপারেশন অলিভ ব্রাঞ্চ নামে’ কুর্দি বিরোধী অভিযান শুরু করে। কয়েক সপ্তাহের লড়াইয়ের পর তুর্কি সেনা ও তাদের সহযোগী ফ্রি সিরিয়ান আর্মির (এফএসএ) যোদ্ধারা আফরিন ঘিরে ফেলেছে। তারা আফরিনের মূল শহরের বাইরে অবস্থান নিয়েছে আর সেখানে ঢোকার চেষ্টা করছে। ইতোমধ্যে তারা অনেক শহর ও গ্রাম কুর্দি বাহিনীর কাছ থেকে দখলে নিয়েছে।

সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটসের মতে, যুদ্ধের কারণে পালানোর পরও আফরিনে এখনও ১০ লাখের বেশি মানুষ বাস করছেন। কুর্দিদের সামরিক বাহিনী ওয়াইপিজি সিরিয়ায় আইএস দমনে যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ সহযোগী ছিল। কিন্তু তুরস্ক তাদের সন্ত্রাসীগোষ্ঠী হিসেবে চিহ্নিত করে থাকে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য