হাকিমপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরের হাকিমপুরে রোববার রাত ৮ টায় মিঠুন মিয়া (৩০) নামক এক বন্ধু কোরবান আলী নামক এক বন্ধুর দা’য়ের আঘাতে গলাকেটে ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছে। তাস দিয়ে জুয়া খেলা টাকার ভাগ বাটোয়ারাকে কেন্দ্র করে এ হত্যা কান্ডের ঘটনাটি ঘটে। তাদের দু’জনেরই বাড়ী উপজেলার পৌর এলাকাধীন ধরন্দা ফকিরপাড়া মহল্লায়।

হাকিমপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই রাকিব হোসেন ও এলাকাবাসী জানান, উপজেলা সদরের পৌর এলাকাধীন ধরন্দা ফকিরপাড়া মহল্লার ময়না বেগমের বাড়ীর উত্তর পার্শ্বে ফাকা জায়গায় তাস দিয়ে জুয়া খেলার আসর বসেছিল।

সেই জুয়ার আসর থেকে আদায়কৃত টাকার মধ্য থেকে মিঠুন মিয়ার নিকট কোরবান আলী ২০০ টাকা চাঁদা দাবী করে। আর মিঠুন মিয়া সে টাকা দিতে রাজী না হওয়ায় দু’বন্ধুর মধ্যে তর্ক বির্তকের সৃষ্টি হয়।

এরই এক পর্যায়ে কোরবান আলী ঘটনাস্থল ত্যাগ করে, এর কিছুক্ষনের মধ্যেই কোরবান আলী আবারও সেখানে ফিরে এসে কেউ কিছু বুঝে উঠার আগেই পিছন থেকে মিঠুন মিয়ার গলায় ধারালো দা দিয়ে স্বজোরে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু ঘটে।

এরপর কোরবান আলী পালিয়ে গেলে তার মোবাইল ট্যাকিং এর মাধ্যমে গভীর রাতে থানা পুলিশ পাশ্ববর্তী জয়পুরহাট জেলার জামালগঞ্জ এলাকায় তার নানার বাড়ীতে থেকে তাকে আটক করেন। এবং সোমবার তাকে নিয়ে ঘটনাস্থলের পাশ্বে একটি ধানের জমির কাদার নিচ থেকে লুকিয়ে রাখা হত্যা কান্ডে ব্যবহৃত দা’টি উদ্ধার করেন ও কোরবান আলী পুলিশের নিকট প্রাথমিক ভাবে হত্যা কান্ডের কথা স্বীকার করেছে।

এঘটনায় ময়না বেগমসহ ৮ জনকে আসামী করে মিঠুন মিয়ার স্ত্রী শারমিন বেগম হাকিমপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এরমধ্য ৪ জন আসামী পলাতক রয়েছে। পুলিশ আরও জানায় অপর ৪ জনকেও আটকের চেষ্টা চলছে। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে সোমবার ময়না তদন্তের জন্য আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেছে।

মন্তব্য লিখুন (ফেসবুকে লগ-ইন থাকতে হবে)

মন্তব্য